আইপিএলের চিয়ারলিডারদের রহস্যময় জগত – BD Sports 24
  • আইপিএলের চিয়ারলিডারদের রহস্যময় জগত

    April 20th, 2018

    মো. সেলিম রেজা
    বিডিস্পোর্টস২৪ ডটকম

    ঢাকা, ২০ এপ্রিল, ২০১৮ : আইপিএলে চার-ছক্কা কিংবা উইকেট পড়লেই মাঠের পাশে বানানো মঞ্চে উঠে বিদেশি চিয়ারলিডার নাচানাচি শুরু করেন। মাঠে থাকা দর্শকরা তো বটেই, চিয়ারলিডারদের নাচে-উচ্ছ্বাসে মাত হয় ড্রয়িং রুমের দর্শকও। আইপিএলে অন্যতম আকর্ষণও চিয়ারলিডাররা।

    তবে দর্শকদের যতই আনন্দ দেন না কেন, চিয়ারলিডাররা নিজেদের মাঝে পুষে রাখেন চাপা কষ্ট। পুরুষদের ফ্যাশন ম্যাগাজিন ‘মেনস এক্সপি’র জানিয়েছে, আইপিএলে চিয়ারলিডারদের যৌন পণ্য হিসাবেই দেখা হয়। নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক পেশাদার চিয়ারলিডার ‘মেনস এক্সপি’কে বলেন, এখানে আমি একজন নৃত্যশিল্পী হিসেবে চুক্তিবদ্ধ হয়েছিলাম। কিন্ত এখন দেখছি, আমি এখানে যৌন পণ্য ছাড়া আর কিছুই নই।

    তবে আইপিএলেই বহু কষ্টে আছেন এসব পেশার মেয়েরা। ভারতীয় গণমাধ্যমকে নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক পেশাদার চিয়ার লিডার বলেন, ‘বাইরের দেশে যখন কোনও মহিলা নৃত্যশিল্পী নাচেন, তখন তার শরীর কিংবা তিনি কী পোশাক পরেছেন সেটা নিয়ে কেউ এতটা ভাবেই না। এদেশে চিয়ারলিডারদের সেক্স অবজেক্ট হিসাবেই দেখা … প্রায়ই দর্শকদের যৌন-ইঙ্গিতপূর্ণ ব্যবহারও সইতে হয়।’

    দর্শকদের কাছাকাছি থাকতে হয় বিধায় গ্যালারি থেকে প্রায়ই যৌন-ইঙ্গিত পেতে হয় এবং মুখ বুজে সেসব সহ্য করতে হয়। দর্শকদের প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে এক চিয়ারলিডার বলেন, ‘মাঠে অনেকেই এমন অঙ্গভঙ্গি করে, মন্তব্য করে যা সহজে মেনে নেওয়া যায় না। এড়িয়ে যেতে বাধ্য হই আমরা। কিছু বলতে গেলে উল্টো আরও খারাপ কথা শুনতে হয়।’

    বোলারের মাথার উপর দিয়ে বিরাট কোহলির শট আছড়ে পড়ল বাউন্ডারির বাইরে। ছয়!!! গর্জে উঠল চিন্নাস্বামী স্টেডিয়াম। এরই পাশে লাউড মিউজিকের তালে তালে নেচে উঠলেন চিয়ারলিডাররা। এমন দৃশ্য এখন অতি পরিচিত। তবে জানেন কি এ চিয়ারলিডাররা রহস্যময় জগত কিংবা তারা কেমন পারশ্রমিক পান ?

    শেন ওয়ার্নের হাত ধরেই প্রথম আইপিএল চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল রাজস্থান রয়্যালস। সে বছর বাইশ গজে ওয়ার্নের জাদু কী ভাবে একটা আনকোরা টিমকে ফাইনালে তুলেছিল তা তো সকলেই দেখেছেন। তবে সেই জয়ের মাঝে টিমের চিয়ারলিডারদের কথা ভুলে গেলে চলবে না। আইপিএল থেকে এদের আয় ম্যাচ প্রতি প্রায় ৯ হাজার টাকার কাছাকাছি। সঙ্গে অন্য দলগুলোর মতো আইপিএলে ধারাবাহিক ভাবে তুখোড় পারফরম্যান্স করে দেখাতে পারেনি দিল্লি ডেয়ারডেভিলস। তবে টিমের দুঃসময়েও সমান উৎসাহে মাঠ মাতিয়েছেন এর চিয়ারলিডাররা। প্রতি ম্যাচে এর চিয়ারলিডাররা পান ৮ হাজার টাকা এবং সঙ্গে ৩ হাজার টাকা করে বোনাস। এর সঙ্গে যোগ করুন পার্টি এবং নানা ইভেন্ট থেকে আয়।

    দিল্লির মতো ম্যাচ পিছু একই রকম রোজগায় সানরাইজার্স হায়দরাবাদের চিয়ারলিডারদের। অর্থাৎ ম্যাচ পিছু ৮ হাজার এবং ৩ হাজার টাকা করে বোনাস। তবে প্রতি ম্যাচে রোজগারের থেকে এদের আয় বেশি হয় পার্টি এবং ইভেন্টে উপস্থিত থাকার জন্য। সেটা ছাপিয়ে যায় ৮ হাজারের উপরে।নিজেদের পারফরম্যান্স যতই খুল্লামখুল্লা হোক না কেন, টিমের চিয়ারলিডাররা ঠিক কত আয় করেন তা এখনও খোলসা করেনি চেন্নাই সুপার কিংস কর্তৃপক্ষ। তবে তা যে অন্য দলগুলোর থেকে কম নয়, সে কথা নিশ্চিত করে বলা যেতে পারে।

    কলকাতা নাইট রাইডার্সের পিছনে অঢেল টাকা ঢেলেছেন দলের মালিক শাহরুখ খান। এমনটা তো অনেকেই জানেন। এ কথাটা খাটে দলের চিয়ারলিডারদের পারিশ্রমিকের ক্ষেত্রেও। বেসিক হিসেবে ম্যাচ পিছু ৬ হাজার থেকে ১২ হাজার টাকা, সঙ্গে ৩ হাজারের বোনাস নিয়ে যান এরা। এর সঙ্গে রয়েছে টিমের পার্টি বা ইভেন্টের জন্য ৭ হাজার থেকে ১২ হাজার টাকা।

    প্রীতি জিন্টার দলের চিয়ারলিডারদেরও রোজগার বেশ ভালই। কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের এক এক জন চিয়ারলিডাররা প্রতি ম্যাচে পান ৮ হাজার টাকা এবং ৩ হাজার টাকা বোনাস। এর সঙ্গে প্রতি ইভেন্টে উপস্থিত থাকার জন্য প্রায় ৯ হাজার টাকা করে আয়।

    বিরাট কোহলিদের চার-ছয় হোক বা অসাধারণ ক্যাচ— মিউজিকের সঙ্গে সঙ্গে প্রত্যেক বারই নেচে ওঠেন রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর চিয়ারলিডাররা। আর এর জন্য ম্যাচ প্রতি তাদের রোজগার হাজার দশেক টাকা এবং ৩ হাজার টাকা করে বোনাস। এর সঙ্গে প্রতি ইভেন্টে উপস্থিত থাকার জন্য আরও ১০ হাজার টাকা করে পান তারা। সূত্র : আনন্দবাজার.কম।

    বিডিস্পোর্টস২৪ ডটকম/এমএ


অতিথি কলাম

সাক্ষাৎকার

স্পোর্টস ফ্যাশন


প্রবাসী তারকা

জেলা ক্রীড়া সংস্থা

বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থা

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১  


ক্রীড়া সাহিত্য

ব্যাডমিন্টন

আরচ্যারি

গল্‌ফ

ভারোত্তোলন

মহিলা ক্রীড়া সংস্থা