আবাহনীর জয় নাকি ব্যাঙ্গালুরুর প্রতিশোধ? – BD Sports 24
  • আবাহনীর জয় নাকি ব্যাঙ্গালুরুর প্রতিশোধ?

    March 14th, 2018

    মোয়াজ্জেম হোসেন রাসেল

    বিশেষ প্রতিনিধি, বিডিস্পোর্টস২৪ ডটকম

    ঢাকা, ১৪ মার্চ: এএফসি কাপের আবাহনীর জন্য সুখকর স্মৃতি হয়ে আছে গত বছর ব্যাঙ্গালুরু এফসির বিপক্ষে পাওয়া জয়টি। ঘরের মাঠ বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে পোস্ট ছেড়ে বেড়িয়ে আসা অতিথি গোলরক্ষককে বোকা বানিয়ে উঁচু শটে গোল করেছিলেন রুবেল মিয়া। এই এক গোলেই পরম আরাধ্য জয়টি এসেছিল বাংলাদেশ চ্যাম্পিয়নদের।

    রুবেলের সেই গোলেই প্রেরণা খুঁজছে বিপিএলের বর্তশান চ্যাম্পিয়নরা। এশিয়ান ক্লাব ফুটবলের আসরে এটিই ধানমন্ডির জায়ান্টদের সর্বশেষ আসরে বড় সাফল্য। যদিও এখন পর্যন্ত দ্বিতীয় রাউন্ডে খেলার সৌভাগ্য পূরণ হয়নি আবাহনীর। এবার সেই চেষ্টা করেও হোচট খেয়েছে প্রথম ম্যাচে। ৭ মার্চ নিজেদের মাঠে ১-০ গোলে হেরেছে মালদ্বীপের নিউ রেডিয়েন্ট ক্লাবের বিপক্ষে। অনেকগুলো গোলের সুযোগ তৈরি করেও গোল পায়নি সাইফুল বারী টিটুর শিষ্যরা। এই ম্যাচ দিয়ে আরো একবার দেশ দুটির ফুটবলের পার্থক্য ফুটে উঠেছে।

    প্রথম ম্যাচে পরাজয়ের সাতদিনের মাথায় আবারো এএফসি কাপের দ্বিতীয় ম্যাচে মাঠে নামছে বাংলাদেশের প্রতিনিধি আবাহনী লিমিটেড। ভারতীয় দলটির বিপক্ষে আজ রাত সাড়ে আটটায় ব্যাঙ্গালুরুর শ্রী কান্তিভেরা স্টেডিয়ামে মাঠে নামবে মামুন মিয়ার দল। এশিয়ান কোটায় দলে নেওয়া জাপানী মিডফিল্ডার কোজিমো সেইয়া শুরু থেকে থাকলেও ম্যাচের আগেরদিন যোগ দেন বাকি দুই বিদেশী এলিসন উডুকা ও এমেকা ডার্লিংটন। শেষের দুজনের ভিসা পেতে দেরি হওয়ায় আলাদাভাবে ভারতে গেছেন।  আবাহনী এবার ‘ই’ গ্রুপে খেলছে। প্রতিপক্ষ ব্যাঙ্গালুরু এএফসি কাপে অন্যতম সফল দলগুলোর একটি।

    ২০১৩ সালে প্রতিষ্ঠার পর খেলা চারটি আই লিগের দুটিতে শিরোপা জয় করেছে। সর্বশেষ আসরে রানার্সআপ দলটি এরই মধ্যে সেমিফাইনালের গণ্ডি পেরিয়ে গেছে। সেখানে আলাদা করে বললে হবে অধিনায়ক সুনীল ছেত্রীর নাম। হ্যাটট্রিক করে আলোটা নিজের করে নিয়েছেন এই সুপারস্টার। ইন্ডিয়ান সুপার লিগে এবার এককথায় দুর্দান্ত খেলছে দলটি। তারা যে ভালো দল সেটির প্রমাণ নতুন করে দেবার কোনো প্রয়োজন নেই। এই আসরে প্রি প্লে-অফ, প্লে-অফ এই দুই ধাপ পেরিয়ে চূড়ান্ত পর্ব খেলছে ব্যাঙ্গালুরু।

    ২০১৫ ও ২০১৭ সালের আসরে এএফসি কাপের উপরের স্থরে খেলার যোগ্যতা অর্জন করেছে। এছাড়া দলটির স্প্যানিশ কোচ আলবার্তো রাকার পাশাপাশি পাঁচজন ফুটবলারও রয়েছেন স্পেনের। সে হিসেবে আবাহনীর প্রতিপক্ষ দলটিকে পরিষ্কার ফেবারিট না বলে উপায় নেই। যদিও আবাহনী কোচ টিটু সুযোগ কাজে লাগিয়ে জয়েই চোখ রাখছেন। কিন্তু সেটা কতটা সম্ভব তা প্রশ্নসাপেক্ষ বিষয়।

    অনেকদিনের পরিকল্পনা, প্রস্তুতি নিয়েও ঘরের মাঠে পরাজিত দলের তালিকায় নাম লিখিয়েছে আবাহনী। তার আগে প্রথমবার প্লে অফ খেলার সুযোগ পাওয়া সাইফ স্পোর্টিং ক্লাব লিমিটেডও ঘরের মাঠে পাশাপাশি প্রতিপক্ষ মালদ্বীপের টিসি স্পোর্টস ক্লাবের বিপক্ষেও পরাজিত হয়।

    বিশ্ব ফুটবলে যেখানে ঘরের মাঠে এগিয়ে থাকে স্বাগতিক ক্লাবগুলো, সেখানে ব্যতিক্রম কেবল বাংলাদেশের ক্লাবগুলো। হয়তো ব্যাঙ্গালুরু আবাহনীর বিপক্ষে ঘরের মাঠের পুরো ফায়দা তুলে নেবে, শুধু পারে না আবাহনী, সাইফ স্পোর্টিংরা। চেনা পরিবেশে যেখানে গোলের জন্য মাথা ঠুকে মরতে হয়, সেখানে প্রতিপক্ষের অচেনা মাঠে কতটা ভালো করতে পারবে সে বিষয়ে সন্দিহান না থেকে উপায় নেই। আর আবাহনীর এএফসি কাপের ভাগ্য কখনোই সহায় হয়নি। নয়তো একাধিকবার খেলেও দ্বিতীয় রাউন্ডে যেতে পারেনি বাংলাদেশী প্রতিনিধিরা। এবার কি সেই ধারা বদলাবে, নাকি আগের মতোই প্রথম রাউন্ড থেকে বিদায় নিতে হবে সেটাই এখন দেখার বিষয়।

     

    বিডিস্পোর্টস২৪ ডটকম/বিকে


অতিথি কলাম

সাক্ষাৎকার

স্পোর্টস ফ্যাশন


প্রবাসী তারকা

জেলা ক্রীড়া সংস্থা

বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থা

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০


ক্রীড়া সাহিত্য

ব্যাডমিন্টন

আরচ্যারি

গল্‌ফ

ভারোত্তোলন

মহিলা ক্রীড়া সংস্থা