আয়ারল্যান্ডের অাজ টেস্ট অভিষেক – BD Sports 24
  • আয়ারল্যান্ডের অাজ টেস্ট অভিষেক

    May 11th, 2018

    স্পোর্টস ডেস্ক, বিডিস্পোর্টস২৪ ডটকম
    ডাবলিন, ১১ মে ২০১৮ : ক্রিকেট বিশ্বের এগারতম দেশ হিসেবে আয়ারল্যান্ডের আজ টেস্ট অভিষেক হতে যাচ্ছে। ঘরের মাঠ ডাবলিনে তাদের প্রতিপক্ষ পাকিস্তান। বাংলাদেশ সময় বিকেল ৪টায় এক ম্যাচের এ সিরিজ শুরু হবে।

    আয়ারল্যান্ড অবশ্য ১৭৩১ সাল থেকেই ক্রিকেট খেলছে। তবে ১৯৯৩ সালে দেশটি ইন্টারন্যাশাল ক্রিকেট কাউন্সিলের (আইসিসি) সহযোগী সদস্য পদ লাভ করে। এরপর ওয়ানডে স্ট্যাটাস পায় ২০০৭ সালে। ওয়ানডে স্ট্যাটাস পাওয়ার ১০ বছর পর আইরিশরা টেস্ট মর্যাদা লাভ করে। ক্রিকেট জগতে প্রবেশের পর প্রায় তিনশ’ বছর পর টেস্ট ফরম্যাটে খেলতে নামছে আইরিশরা। টেস্ট মর্যাদার পরীক্ষা আজই প্রথম দেবে।

    ১৯৩১ সালে ডাবলিনের ফনিক্স ক্রিকেট ক্লাবে ব্যাট-বল হাতে পথ চলা শুরু আয়ারল্যান্ডের। সেই পথ ধরে ইতোমধ্যে ক্রিকেট জগতে সুনাম কুড়িয়েছে আইরিশরা। ওয়ানডে স্ট্যাটাস পাওয়ার বছরই প্রথমবারের মত ২০০৭ ওয়ানডে বিশ্বকাপ খেলে তারা। গ্রুপ পর্বে নিজেদের প্রথম ম্যাচে জিম্বাবুয়ের সাথে টাই করে আয়ারল্যান্ড।

    এরপর নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে পাকিস্তানকে ১৩২ রানে গুটিয়ে দিয়ে শেষ পর্যন্ত বৃষ্টি আইনে ৩ উইকেটে জয় পায়। এতেই বিশ্বকাপে নিজেদের অভিষেক আসরে সুপার এইটে নাম লেখায় আইরিশরা।

    সুপার এইটে ছয় ম্যাচে অংশ নিয়ে মাত্র একটিতে জয় পায় আয়ারল্যান্ড। ইংল্যান্ড-দক্ষিণ আফ্রিকা-নিউজিল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়া-শ্রীলঙ্কার কাছে হারলেও বাংলাদেশের বিপক্ষে ৭৪ রানে জয় তুলে নেয় ট্রেন্ট জনসনের দলটি।

    প্রথম আসরে সুপার এইটে উঠতে পারলেও ২০১১ ও ২০১৫ বিশ্বকাপ আসরের গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নেয় আয়ারল্যান্ড। তবে দু’টি আসরেই নিজেদের পারফরম্যান্স উজ্জ্বল ছিল।

    ২০১১ বিশ্বকাপে আয়ারল্যান্ডের সবচেয়ে বড় চমক ছিল ইংল্যান্ডকে হারানো। পরের বিশ্বকাপে শুরুতে ক্রিকেট বিশ্বকে আবারো চমকে দেয় আয়ারল্যান্ড। নিউজিল্যান্ডের নেলসনে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে পরাজিত করে।

    শুধুমাত্র বিশ্বকাপের বড় মঞ্চেই নয়, দ্বিপক্ষীয় ওয়ানডে সিরিজগুলোতেও দুর্দান্ত সব জয়কে সঙ্গী করেছে আয়ারল্যান্ড। আয়ারল্যান্ড অধিনায়ক উইলিয়াম পোর্টারফিল্ড নিজেদের প্রথম টেস্টকে বড় উপলক্ষ্য হিসেবে অভিহিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘আয়ারল্যান্ড ক্রিকেটের সাথে জড়িত সবার জন্য এটি অনেক বড় উপলক্ষ।’

    নিজেদের অবিস্মরণীয় টেস্টে সাবেক ও বর্তমান খেলোয়াড়দের অবদান অস্বীকার্য বলে জানান পোর্টারফিল্ড, ‘অতীতে আমরা অনেক খেলোয়াড় পেয়েছি। কিছু খেলোয়াড় এখানেও আছে, আবার কিছু নেই। কিন্ত আমাদের মনে রাখতে হবে এবং স্বীকৃতি দিতে হবে এ পর্যায়ে আসতে তারা কি করেছেন। তাদের অবদান না থাকলে আমরা শুক্রবারের ম্যাচের জন্য ভাগ্যবান নাও হতে পারতাম।’

    এদিকে আয়ারল্যান্ডের এমন ঐতিহাসিক ম্যাচের অংশ হতে পেরে খুশি পাকিস্তানের অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ। তিনি বলেন, ‘এমন ঐতিহাসিক টেস্টে অংশ হতে পারাটা বিশেষ কিছু।’

    উল্লেখ্য অস্ট্রেলিয়া বাদে ক্রিকেট ইতিহাসে নিজেদের অভিষেক টেস্ট এখনও কোন দল জিততে পারেনি।

    বিডিস্পোর্টস২৪ডটকম/এমএ


অতিথি কলাম

সাক্ষাৎকার

স্পোর্টস ফ্যাশন


প্রবাসী তারকা

জেলা ক্রীড়া সংস্থা

বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থা

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১  


ক্রীড়া সাহিত্য

ব্যাডমিন্টন

আরচ্যারি

গল্‌ফ

ভারোত্তোলন

মহিলা ক্রীড়া সংস্থা