কলকাতা টেস্ট ড্র – BD Sports 24
  • কলকাতা টেস্ট ড্র

    November 20th, 2017

    ক্রীড়া ডেস্ক

    বিডিস্পোর্টস২৪ ডটকম

    কলকাতা, ২০ নভেম্বর: বৃষ্টিবিঘ্নিত কলকাতা শেষ ড্র হয়েছে। বৃষ্টির কারণে ভারত-শ্রীলংকা টেস্টের প্রথম দিন খেলা হয়েছিলো মাত্র ৭১ বল। দ্বিতীয় দিনও বৃষ্টি অব্যাহত ছিলো। তবে দ্বিতীয় দিনে মোট খেলা হয়েছে ১২৬ বল। দ্বিতীয় দিন শেষে ৫ উইকেটে ৭৪ রান করেছিল ভারত।

    তৃতীয় দিনে এসে ভারতের প্রথম ইনিংস ১৭২ রানে গুটিয়ে যায়। জবাবে তৃতীয় দিন শেষে সফরকারী শ্রীলংকা ৪ উইকেটে ১৬৫ রান করে।

    বৃষ্টি কারণে প্রথম টেস্টের প্রথম দিন ৭১ ও দ্বিতীয় দিন ১২৪ বল খেলা হয়েছিলো। এই ১৯৫ বল খেলতে গিয়ে শ্রীলংকার দুই পেসার সুরাঙ্গা লাকমল ও দাসুন শানাকার সামনে রীতিমতো অসহায় হয়ে পড়ে কোহলি-ধাওয়ানরা। তাই ডাবল-ফিগারে পা রাখার আগেই সাজঘরে ফিরে স্বাগতিকদের পাঁচ পাঁচজন ব্যাটসম্যান।

    দলের সতীর্থদের যাওয়ার আসার মাঝে নিজেকে মেলে ধরেন চেতেশ্বর পূজারা। এক প্রান্ত দিয়ে উইকেটের পতন হলেও অন্য প্রান্ত আগলে রেখেছিলেন পূজারা। শেষ পর্যন্ত ১০টি চারে ১১৭ বলে ৫২ রান তুলে তৃতীয় দিনের শুরুতেই থামেন পূজারা।

    দলীয় ৭৯ রানে ষষ্ঠ ব্যাটসম্যান হিসেবে পূজারা ফিরে যাবার পর চার টেল-এন্ডারদের ছোট্ট ছোট্ট ইনিংসে ১৭২ রান পর্যন্ত যেতে পারে ভারত। উইকেটরক্ষক ঋদ্ধিমান সাহা ২৯, রবীন্দ্র জাদেজা ২২, ভুবেনশ্বর কুমার ১৩, মোহাম্মদ সামি ২৪ রান করেন। শেষ ব্যাটসম্যান উমেশ যাদব ৬ রানে অপরাজিত থাকেন।

    শ্রীলংকার পক্ষে লাকমল ৪টি ও গামেগা, শানাকা ও পেরেরা ২টি করে উইকেট নেন।

    ভারতকে মধাহ্ন-বিরতির আগে গুটিয়ে দিয়ে নিজেদের ব্যাটিং শুরু করে শ্রীলংকা। দলীয় ২৯ রানে প্রথম উইকেট হারায় তারা। ৮ রান করে ফিরেন দিমুথ করুনারত্নে। কিছুক্ষণ পর প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন আরেক ওপেনার সাদিরা সামারাবিক্রমা। ভারতের পেসার ভুবেনশ্বর কুমারের দ্বিতীয় শিকারের আগে ২৩ রান করেন সামারাবিক্রমা।

    এরপর ভারতীয় বোলারদের উপর আধিপত্য বিস্তার করে খেলেন লাহিরু থিরিমান্নে ও সাবেক অধিনায়ক অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুজ। তৃতীয় উইকেটে ৯৯ রান যোগ করেন তারা। বড় জুটি গড়ার পথে দু’জনই পেয়েছেন হাফ-সেঞ্চুরির স্বাদ। অবশ্য অর্ধশতকের পর নিজেদের ইনিংসটা বড় করতে পারেননি থিরিমান্নে ও ম্যাথুজ। ৫ রানের ব্যবধানে এবং পর পর দু’ওভারে থিরিমান্নে ও ম্যাথুজকে ফিরিয়ে দেন ভারতের পেসার উমেশ যাদব।

    থিরিমান্নে ও ম্যাথুজ ৮টি করে বাউন্ডারিতে ৯৪ বল করে খেলে নিজেদের ইনিংস সাজান। তবে থিরিমান্নের চেয়ে ১ রান বেশি করে ম্যাথুজ। থিরিমান্নে ৫১ ও ম্যাথুজ ৫২ রান করেন।

    দলীয় ১৩৮ রানের মধ্যে দু’জনের বিদায়ের পর অবিচ্ছিন্ন ২৭ রানের জুটি গড়ে দিন শেষ করেন অধিনায়ক দিনেশ চান্ডিমাল ও উইকেটরক্ষক নিরোশান ডিকবেলা।

    দুই ওপেনার শিখর ধাওয়ান ও লোকেশ রাহুলের ব্যাটিং নৈপুণ্যে কলকাতা টেস্টের চতুর্থদিনে ঘুরে দাঁড়িয়েছে ভারত। প্রথম ইনিংসে ১২২ রানে পিছিয়ে থেকে চতুর্থ দিন শেষে দ্বিতীয় ইনিংসে  ১ উইকেটে ১৭১ রান তুলেছে ভারত। ফলে ৯ উইকেট হাতে নিয়ে ৪৯ রানের লিড নিয়েছে স্বাগতিকরা। ধাওয়ান ৯৪ রানে ফিরলেও, ৭৩ রানে অপরাজিত ছিলেন লোকেশ রাহুল।

    চতুর্থ দিন শেষে ভারতের সংগ্রহ ছিল ১ উইকেটে ১৭১। পঞ্চম দিনের প্রথম সেশনে ভারত চার চারটি উইকেট হারিয়েছে। আগের দিনের ৭৩ রানের সাথে আর মাত্র ৬ রান করেই বিদায় নেন লোকেশ রাহুল।

    চেতেশ্বর পূজারাও বেশিদূর এগুতে পারেননি। লাকমালের বলে পেরেরার হাতে ধরা পড়ার আগে ২২ রান করেন পূজারা। লঙ্কান পেসার লাকমাল আজিঙ্কা রাহানেকে এলবিডব্লিউ’র ফাঁদে ফেললে শূন্য রানে বিদায় নেন রাহানে। রবীন্দ্র জাদেজা আউট হন ৯ রানে।

    লাঞ্চের পর এক প্রান্ত আগলে রাখেন অধিনায়ক কোহলি। অশ্বিন ৭, ঋদ্ধিমান সাহা ৫ এবং ভুবনেশ্বর কুমার ৮ রান করে আউট হন। অধিনায়ক কোহলি ১১৯ বলে ১২ বাউন্ডারি ও দুই ছক্কায় ১০৪ রানে এবং মোহাম্মদ সামি ১২ রানে অপরাজিত থাকেন।

    অধিনায়ক বিরাট কোহলি নিজের সেঞ্চুরি পূর্ণ হওয়ার সাথে সাথে ইনিংস ঘোষণা করেন। এটি তার ১৮তম টেস্ট সেঞ্চুরি। এর ফলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ওয়ানডে ও টেস্ট মিলিয়ে সেঞ্চুরির হাফ সেঞ্চুরি পুর্ণ করলেন ভারতীয় অধিনায়ক। ওয়ানডেতে তার ৩২টি সেঞ্চুরি রয়েছে। ভারতীদের স্কোর তখন ৩৫২/৮। আর লিড ২৩০ রানের।

    লঙ্কান বোলারদের মধ্যে সুরাঙ্গা লাকমাল ও দাসুনা সানাকা দুটি করে উইকেট নেন।

    পঞ্চম দিনে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে লঙ্কানরা ভারতীয় বোলারদের দাপুটে বোলিংয়ে দিশেহারা হয়ে পড়ে। বিশেষ করে ভুবনেশ্বর কুমার ও মোহাম্মদ রুদ্রমূর্তি ধারণ করেন। ভারতীয় বোলারদের দাপটে ২৬.৩ ওভারে ৭৫ রান তুলতেই ৭ উইকেট হারায় সফরকারীরা। ডিকওয়েলা (২৭), চান্দিমাল (২০) ও ম্যাথুজ (১২) ছাড়া আর কোনো ব্যাটসম্যানই দুই অংকের ঘরে পৌঁছাতে পারেননি। ওপেনার সামারাবিক্রমে এবং দিলরুয়ান পেরেরা রানের খাতাও খুলতে পারেননি।

    ভারতীয় বোলারদের মধ্যে ভুবনেশ্বর কুমার ৮ রানে ৪ উইকেট (১১-৮-৮-৪), মোহাম্মদ সামি ৩৪ রানে দুই উইকেট এব উমেশ যাদব ২৫ রানে ১ উইকেট নেন।

    আগামী ২৪ নভেম্বর থেকে নাগপুরে শুরু হবে তিন টেস্ট সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট ম্যাচটি।

    সংক্ষিপ্ত স্কোর:

    ভারত প্রথম ইনিংস: ১৭২/১০ (৫৯.৩ ওভার) (পূজারা ৫২, ঋদ্ধিমান সাহা ২৯, সামি ২৪, জাদেজা ২২; লাকমাল ৪/২৬, গমেজ ২/৫৯, সানাকা ২/৩৬, পেরেরা ২/১৯)।

    শ্রীলংকা প্রথম ইনিংস: ২৯৪/১০ (৮৩.৪ ওভার) (হেরাথ ৬৭, ম্যাথুজ ৫২, থিরিমান্নে ৫১, ডিকওয়েলা ৩৫, চান্দিমাল ২৮, সাকানা ২৩, লাকমাল ১৬; ভুবনেশ্বর কুমার ৪/৮৮, সামি ৪/১০০, উমেশ যাদব ২/৭৯।

    ভারত দ্বিতীয় ইনিংস: ৩৫২/৮ (৮৮.৪ ওভার) (বিরাট কোহলি অপ: ১০৪, ধাওয়ান ৯৪, লোকেশ রাহুল ৭৯, পূজারা ২২, সামিন অপ: ১২; লাকমাল ৩/৯৩, সানাকা ৩/৭৬)।

    শ্রীলংকা দ্বিতীয় ইনিংস: ৭৫/৭ (২৬.৩ ওভার) (ডিকওয়েলা ২৭, চান্দিমাল ২০, ম্যাথুজ ১২; ভুবনেশ্বর কুমার ৪/৮, মোহাম্মদ সামি ২/৩৪, উমেশ যাদ ১/২৫)।

    ফল : ম্যাচ ড্র।

    ম্যান অব দ্য ম্যাচ: ভুবনেশ্বর কুমার (ভারত)।

     

    বিডিস্পোর্টস২৪ ডটকম/বিকে


অতিথি কলাম

    No posts here...

সাক্ষাৎকার

স্পোর্টস ফ্যাশন


প্রবাসী তারকা

    No posts here...

জেলা ক্রীড়া সংস্থা

বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থা

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০  


ক্রীড়া সাহিত্য

ব্যাডমিন্টন

আরচ্যারি

গল্‌ফ

ভারোত্তোলন

মহিলা ক্রীড়া সংস্থা