চট্টগ্রাম টেস্ট থেকে আত্মবিশ্বাসের জ্বালানী – BD Sports 24
  • চট্টগ্রাম টেস্ট থেকে আত্মবিশ্বাসের জ্বালানী

    February 5th, 2018

    মোয়াজ্জেম হোসেন রাসেল, বিশেষ প্রতিনিধি

    বিডিস্পোর্টস২৪ ডটকম

    ঢাকা, ৫ ফেব্রুয়ারি: শ্রীলংকার বিপক্ষে চট্টগ্রাম টেস্ট শুরুর আগে মানসিকভাবে কিছুটা হলেও বিপর্যস্ত ছিল বাংলাদেশ দল। কারণ চতুর্থবারের মতো কোনো ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে উঠে শিরোপা বঞ্চিত হয়েছিল মাশরাফি বিন মর্তুজার দল। তার আগের ম্যাচটিও একশ’র নিচে অলআউট হয়েছিল স্বাগতিকরা। টাইগারদের সাবেক গুরু চন্ডিকা হাথুরুসিংহে আবার প্রতিপক্ষ হিসেবে ছিল। প্রথম তিন ম্যাচ সবকিছু চলছিল ঠিকঠাকভাবে। কিন্তু শেষ দুই ম্যাচটাকে সহজেই ভুলে যেতে চাইবে বাংলাদেশে। চেয়েছে এবং করেছে বলা যেতে পারে। অনেকটা টেস্ট মেজাজে বুক চিতিয়ে লড়াই করে ড্র করেছে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দল। হারতে হারতে যে ম্যাচ ড্র করা যায় সেই শিক্ষাটা আরো একবারের মতো দেখাতে পেরেছে বাংলাদেশ দল।

    ম্যাচের চতুর্থ দিন ৮১ রানে ৩ উইকেট হারিয়ে চোখ রাঙানি দিচ্ছিল পরাজয়ের। শ্রীলংকাও জয়ের স্বপ্ন দেখছিল, আর সেখানেই বাধার দেয়াল হয়ে দাঁড়ান মুমিনুল হক সৌরভ ও লিটন দাস। দুজনের বুক চিতিয়ে লড়াই করা দেখে মনে হয়েছে বাংলাদেশ এখন টেস্টে ভালো খেলছে। অথচ শততম টেস্টে দলের বাইরে থাকা মাহমুদউল্লাহ রিয়াদই এবার ত্রাতা হলেন। অভিষেকে টেস্ট ড্র করতে পেরে বেশ খুশি ৩২-এ পা দেওয়া ময়মনসিংহের এ ক্রিকেটার। আর সেটাই ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হওয়া ঢাকা টেস্টের জন্য আত্মবিশ্বাসের জ্বালানী হতে পারে বাংলাদেশের জন্য।

    প্রথম ইনিংসের দাপুটে ব্যাটিং স্বপ্ন দেখাচ্ছিল ভালো কিছুর। কিন্তু লংকানদের প্রতিরোধ তাতে জল ঢেলে দেয়। প্রথম ইনিংসে শ্রীলংকা ২০০ রানের লিড নেওয়ার পর চাপে পড়ে যায় বাংলাদেশ। বড় ধরনের অঘটনের শঙ্কা নিয়ে চতুর্থ দিন বিকেলে মাঠ ছাড়ে বাংলাদেশ দল। পঞ্চম দিন মুমিনুল হক সৌরভ, লিটন কুমার দাসের ব্যাটে উড়ে যায় সব শঙ্কা। হারের সংশয় জাগা ম্যাচ ড্র করে মাঠে ছাড়ে বাংলাদেশ। এক রাতে কী ভাবে বদলে গেল দল? কী বার্তা ছিল পঞ্চম দিনের কঠিন সকালের জন্য? রোববার বিকেলে ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে এসে দেশের দশম টেস্ট অধিনায়ক জানান সেই কথা, ‘এবার পরিকল্পনা পুরোপুরি কাজে দিয়েছে। আমাদের একটা পরিকল্পনাই ছিল আমাদের মধ্যে বিশ্বাসটা যেন থাকে। গর্বটা যেন থাকে যে আমরা বাংলাদেশকে প্রতিনিধিত্ব করছি। ওইভাবেই যেন আমাদের ক্ষমতার প্রকাশ করি।

    অন্যদিকে চট্টগ্রাম টেস্টের ম্যাচসেরা ও ড্র’র নায়ক মুমিনুল বিষয়টি জানালেন আরো গুরুগম্ভীরভাবে। চতুর্থ দিন রাতে লিটন ও রিয়াদের সাথে কথা বলেই সবকিছু পরিবর্তন হয়ে যায়। তবে সবকিছুকে ছাপিয়ে গেছে মুমিনুলের দৃঢ়তা। উচ্চতা মাত্র ৫ ফিট সাড়ে ৩ ইঞ্চি। হালকা পাতলা শরীরের গড়ন। আর বয়স ২৬ হলেও চেহারায় কৈশোরের ছাপ এখনও যায়নি। তারপরও বাংলাদেশ দলের টেস্টে অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান মুমিনুল হক। একের পর এক ভেঙ্গেই চলেছেন দলের পুরোনো সব রেকর্ডগুলো।

    চট্টগ্রামেই বাংলাদেশের প্রথম কোনো ব্যাটসম্যান হিসেবে এক টেস্টে দুই ইনিংসেই সেঞ্চুরি করেছেন মুমিনুল। তিনি অভিষেকের পর থেকে এখন পর্যন্ত খেলেছেন ২৬টি টেস্ট ম্যাচ। আর বাংলাদেশ দলের হয়ে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ ব্যাটিং গড়ও তার। তার ব্যাটিং গড় ৪৯.২৫। যেখানে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ গড় সাকিব আল হাসানের, গড় ৪০.৩৮। টেস্টে বাংলাদেশের হয়ে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ টেস্ট সেঞ্চুরির মালিকও এখন মমিনুল। প্রথম টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংস পর্যন্ত তার সেঞ্চুরির সংখ্যা ৬টি। টেস্টে ৮টি সেঞ্চুরি নিয়ে সবার উপরে আছেন তামিম ইকবাল। এছাড়া সাকিব আল হাসানের রয়েছে পাঁচটি সেঞ্চুরি।

    চট্টগ্রাম টেস্টের শেষ দিনে আরেকটি রেকর্ড গড়েছেন মুমিনুল। এক টেস্টে দেশের হয়ে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড নিজের করে নিয়েছেন বাঁহাতি এই টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান। পেছনে ফেলেছেন দেশের হয়ে টেস্ট ও ওয়ানডেতে সর্বোচ্চ রানের মালিক তামিম ইকবালকে। ২৮১ রান এখন জ্বলজ্বল করছে তার নামের পাশে। ২০১৫ সালে খুলনায় পাকিস্তানের বিপক্ষে ২৩১ রান করেছিলেন তামিম। প্রথম ইনিংসে ২৫ রান করা বাঁহাতি ওপেনার দ্বিতীয় ইনিংসে করেছিলেন ২০৬ রান। তার দারুণ ব্যাটিংয়ে পাকিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট বাঁচায় বাংলাদেশ। চট্টগ্রাম টেস্টে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে প্রথম ইনিংসে মুমিনুল করেন ১৭৬ রান। দ্বিতীয় ইনিংসেও সেঞ্চুরি করে আউট হয়েছেন ১০৫ রান করে।

    এই টেস্টে আরও একটি রেকর্ড গড়েছেন তিনি। প্রথম ইনিংসেই টাইগারদের হয়ে সবচেয়ে কম ম্যাচ খেলে পৌঁছেছেন ২০০০ রানের ক্লাবে। এই মাইলফলকে পৌঁছাতে তিনি খেলেছেন ২৬ ম্যাচ ও ৪৭ ইনিংস। পেছনে ফেলেছেন তামিম ইকবালের ২৮ ম্যাচে ২ হাজারি ক্লাবে ঢোকার রেকর্ড। এছাড়া দলের হয়ে সবচেয়ে কম ম্যাচ খেলে এক হাজারি ক্লাবেও ঢোকেন মুমিনুল। দেশের হয়ে প্রতিদিনই নতুন করে লিখছেন রেকর্ডের খাতা। সামনে হয়তো আরও অনেক রেকর্ড দর্শকরা দেখতে পাবেন মুমিনুল হক সৌরভের ব্যাট থেকে। ব্যাট হাতে প্রতিনিয়ত সৌরভ ছড়াবেন এই প্রত্যাশা কোটি ক্রিকেটপ্রেমীদের। পাশাপাশি চট্টগ্রামের পর এবার ঢাকায় জয় নিয়েই মাঠ ছাড়তে চায় লালসবুজ প্রতিনিধিরা।

    বিডিস্পোর্টস২৪ ডটকম/বিকে


অতিথি কলাম

সাক্ষাৎকার

স্পোর্টস ফ্যাশন


প্রবাসী তারকা

জেলা ক্রীড়া সংস্থা

বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থা

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০


ক্রীড়া সাহিত্য

ব্যাডমিন্টন

আরচ্যারি

গল্‌ফ

ভারোত্তোলন

মহিলা ক্রীড়া সংস্থা