চতুর্থ জয় পেলো প্রাইম ব্যাংক – BD Sports 24
  • চতুর্থ জয় পেলো প্রাইম ব্যাংক

    March 6th, 2018

    ক্রীড়া প্রতিবেদক

    বিডিস্পোর্টস২৪ ডটকম

    সাভার, ৬ মার্চ: নিজেদের অষ্টম ম্যাচে চতুর্থ জয়ের দেখা পেয়েছে প্রাইম ব্যাংক। আজ তারা উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচে প্রাইম দোলেশ্বরকে পরাজিত করেছে ১ উইকেটে। প্রাইম দোলেশ্বরের করা ২৮৬ রানের জবাবে প্রাইম ব্যাংক ২ বল বাকি থাকতে ৯ উইকেটে ২৮৭ রান করলে এক উইকেটের নাটকীয় জয় পায় প্রাইম ব্যাংক। ওপেনার মেহরাব হোসেন জুনিয়রের ১২৫ বলে ১০২ রান এবং সাজ্জাদুল হকের ৩৮ বলে ৫১ রানের কল্যাণে জয় পায় প্রাইম ব্যাংক।

    ২৮৭ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে প্রাইম ব্যাংকের দুই ওপেনার মেহেদী মারুফ ও মেহরাব হেসেন জুনিয়র ১৪৭ রানের পার্টনারশিপ গড়ে দারুণ সূচনা এনে দেন। ব্যক্তিগত ৮২ রানে জোহেইব খানের বলে স্ট্যাম্প হয়ে সাজঘরে ফিরে মেহেদী মারুফ। তার ৯০ বলের ইনিংসে ৬টি বাউন্ডারি ও তিনটি ছক্কার মার রয়েছে।

    প্রাইম দোলেশ্বরের ডানহাতি স্পিনার শরীফুল্লাহ পর পর দুই বলে ফিরিয়ে দেন আল-আমিন ও ইউসুফ পাঠানকে। শরীফুল্লাহ তার করা দশম ওভারের প্রথম বলে আল-আমিনকে ফরহাদ রেজার ক্যাচে পরিণত করেন। দলীয় রান তখন ১৫৮। এরপর ক্রিজে আসেন ভারতীয় ক্রিকেটার ইউসুফ পাঠান। শরীফুল্লাহর পরের বলে ইউসুফ পাঠান এলবিডব্লিউ হয়ে গেলে তৃতীয় উইকেট হারায় প্রাইম ব্যাংক। ইউসুফ পাঠান রানের খাতা খুলতে পারেননি। পরপর দুই উইকেট শিকারে হ্যাটট্রিকের সম্ভাবনা জাগিয়ে তোলেন শরীফুল্লাহ। কিন্তু পরের বলটি নাহিদুল ইসলাম দেখেশুনে মোকাবেলা করায় হ্যাটট্রিকের দেখা পাননি তিনি।

    দলীয় ১৭৫ রানের ৫ রান করা নাহিদুল আরাফাত সানির বলে মামুন হোসেনের হাতে ক্যাচ দিলে চতুর্থ উইকেটের পতন ঘটে প্রাইম ব্যাংকের। ১৮৯ রানে শূন্য রানে রান আউট হয়ে বিদায় নেন জাকির হাসান। এরপর মেহরান হোসেন জুনিয়র সাজ্জাদুল হককে সাথে নিয়ে ষষ্ঠ উইকেট জুটিতে ৪৫ রানের পার্টনারশিপ গড়েন। মেহরাব জুনিয়র ১২৫ বলে ১৩টি চারের সাহায্যে ১০২ রান করে আউট হন। ব্যক্তিগত ১১ রানের দেলোয়ার হোসেন আউট হলে সপ্তম উইকেট হারায় প্রাইম ব্যাংক। দলীয় ২৭১ রানে অধিনায়ক মনির হোসেনের বিদায়ে অষ্টম উইকেটের পতন ঘটে প্রাইম ব্যাংকের। মনির হোসেন করেন ৭ রান। ২৭৭ রানে আউট হন সাজ্জাদুল হক। ৩৮ বলে ১ বাউন্ডারি ও তিন ছক্কায় ৫১ রান করেন সাজ্জাদুল। এরপর ১০ নম্বরে ব্যাট করতে নামা শরীফুল ইসলাম ৩ বলে ১টি ছক্কার সাহায্যে ৮ রানে অপরাজিত থাকলে ২ বল বাকি থাকতেই ৯ উইকেটে ২৮৭ রান স্কোরবোর্ডে জমা করে প্রাইম ব্যাংক। ফলে ১ উইকেটে জিতে যায় তারা।

    প্রাইম দোলেশ্বরের বোলারদের মধ্যে আরাফাত সানি, শরীফুল্লাহ ও মামুন হোসেন দুটি করে এবং ফরহাদ রেজা ও জোহেইব খান একটি করে উইকেট নেন।

    এর আগে টস জিতে প্রথমে ব্যাট করতে নামে প্রাইম দোলেশ্বর স্পোর্টিং ক্লাব। চার নম্বরে ব্যাট করতে নামা মার্শাল আইয়ুবের অনবদ্য ১৩৫ রানের কল্যাণে ৫ উইকেটে ২৮৬ রান স্কোরবোর্ডে জমা করে প্রাইম দোলেশ্বর। মার্শাল আইয়ুব তার ১২৮ বলের ইনিংস সাজান ১৪টি বাউন্ডারি ও দুটি বিশাল ছক্কার সাহায্যে। এছাড়া ফজলে মাহমুদ ৪৫ এবং ইমতিয়াজ হোসেন ১৪ রান করে আউট হন। ফরহাদ হোসেন ৫৩ বলে দুই বাউন্ডারি ও তিন ছক্কায় ৬৭ রানে অপরাজিত থাকলে ৫ উইকেটে ২৮৬ রান সংগ্রহ করে প্রাইম দোলেশ্বর।

    প্রাইম ব্যাংকের শরীফুল ইসলাম, নাহিদুল ইসলাম,  ইউসুফ পাঠান ও মনির হোসেন একটি করে উইকেট নেন।

    ম্যাচসেরা হন

    এ ম্যাচ জয়ের ফলে ৮ খেলায় প্রাইম ব্যাংকের সংগ্রহ ৮ পয়েন্ট। অপরদিকে সমসংখ্যক ম্যাচে প্রাইম দোলেশ্বরের অর্জন ৯ পয়েন্ট।

    ম্যাচসেরা হন প্রাইম দোলেশ্বরের মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান মার্শাল আইয়ুব।

     

    বিডিস্পোর্টস২৪ ডটকম/এমএকে


অতিথি কলাম

সাক্ষাৎকার

স্পোর্টস ফ্যাশন


প্রবাসী তারকা

জেলা ক্রীড়া সংস্থা

বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থা

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১  


ক্রীড়া সাহিত্য

ব্যাডমিন্টন

আরচ্যারি

গল্‌ফ

ভারোত্তোলন

মহিলা ক্রীড়া সংস্থা