জাতীয় ব্যাডমিন্টন: এককে সালমান, দ্বৈতে খালেদ-দুলাল, শাপলা-দুলালী, মিশ্র দ্বৈতে শাপলা-খালেদ চ্যাম্পিয়ন – BD Sports 24
  • জাতীয় ব্যাডমিন্টন: এককে সালমান, দ্বৈতে খালেদ-দুলাল, শাপলা-দুলালী, মিশ্র দ্বৈতে শাপলা-খালেদ চ্যাম্পিয়ন

    January 31st, 2018

    সুজা উদ্দিন, পাবনা থেকে

    বিডিস্পোর্টস২৪ ডটকম

    পাবনা, ৩১ জানুয়ারি: জাতীয় ব্যাডমিন্টনে পুরুষ এককে নতুন চ্যাম্পিয়ন পেয়েছে বাংলাদেশ। পাবনায় অনুষ্ঠিত ফি.ম. সামসুল আরেফিন ৩৫তম জাতীয় ব্যাডমিন্টন চ্যাম্পিয়নশিপে কৃতিত্ব দিয়ে এককের শিরোপা নিজের করে নিয়েছেন সিলেটের শাটলার সালমান। বুধবার আসরের ফাইনালে তিনি বাংলাদেশ আনসারের মোহাম্মদ মিনহাজকে ২-১ সেটে পরাজিত করেন।

    এছাড়া পুরুষ দ্বৈতে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে আনসারের রাহাদ কবির খালেদ ও জামিল আহমেদ দুলাল। এ জুটি ২-০ সেটে (২১-১১, ২১-১৯) হারান একই দলের মিনহাজ ও অহিদুলকে। মহিলা দ্বৈতে আনসারের শাপলা আক্তার ও দুলালী হালদার ২-১ সেটে (২০-২২, ২১-১৪, ২৩-২১) বাংলাদেশ আর্মির এলিনা সুলতানা ও নাবিলা জামানকে এবং মিশ্র দ্বৈতে আনসারের শাপলা আক্তার ও রাহাদ কবির খালেদ ২-০ সেটে (২১-১৭, ২১-১৮) একই দলের আহসান হাবীব পরশ ও দুলালী হালদারকে পরাজিত করে চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন।

    অনেক দর্শক উপস্থিতিতে টানটান উত্তেজনায় অনুষ্ঠিত হয় ৫টি ফাইনাল ম্যাচ। নিজের সেরা ক্রীড়া নৈপুণ্য প্রদর্শন করেন শাটলাররা। পুরুষ এককে সালমান প্রথম গেমে ১৯-২১ পয়েন্টে হেরে যান। গেমে ঘুরে দাঁড়ান দীর্ঘদেহী কৌশলী শাটলার। জয় পান ২১-১৭ পয়েন্টে। বেস্ট থ্রিতে ২১-১২ পয়েন্টে  জয়। ২-১ সেটে মিনহাজকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হন গত জাতীয় সামার র‌্যাঙ্কিং ব্যাডমিন্টনে এককে চ্যাম্পিয়ন। এর আগে জুনিয়র কোনো টুর্নামেন্টে অংশ না নিয়ে সরাসরি জাতীয় আসরে খেলেন সালমান, “আমি জুনিয়র কোনো টুর্নামেন্ট খেলিনি। সরাসরি জাতীয় আসরে খেলে এবার সাফল্য পেয়েছি। খুব ভালো লাগছে। কষ্ট করেছি, ফল পেয়েছি।” সিলেট ব্যাডমিন্টন একাডেমিতে ৫ বছর ধরে কোচ সিব্বির আহমেদের অধীনে অনুশীলনে ছিলেন সিলেট সরকারী কলেজের ডিগ্রি দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী। এজন্য তার সাফল্যের জন্য কৃতিত্ব দেন কোচকে, “কোচ আমাকে ভালোভাবে অনুশীলন করিয়েছেন বলে আমার এ অর্জন সম্ভব হয়েছে। তিনি অনেক হেল্প করেছেন। তার কাছে আমি কৃতজ্ঞ”।

    প্রথমে তার মধ্যে ভয় কাজ করছিল। গত আসরের চ্যাম্পিয়ন আয়মান ইবনে জামান এবার অংশ না নেয়ায় তার জন্য অনেকটা সহজ হয়েছে বলে স্বীকার করেন ৬ ভাইয়ের মধ্যে সবার ছোট সালমান, “আয়মান অংশ নিলে হয়তো আরো প্রতিদ্বন্দ্বিতা হতো। তারপরও ভয় কাজ করছিল। মিনহাজের কাছে ২০১৬তে সামার র‌্যাঙ্কিংয়ে হেরেছিলাম।” সেমিফাইনালে তিনি  চট্টগ্রামের উদীয়মান শাটলার সিবগাত উল্লাহকে পরাজিত করেন ২-০ সেটে (২১-১১, ২১-১৪)। কিন্তু তার জন্য ম্যাচটি নিয়ে শঙ্কা ছিল। সিবগাত হঠাৎ ইনজুরির কারণে ম্যাচটি তার জন্য সহজ হয়ে যায় বলে নিজের মুখেই বলেন মা-বাবার আদরের সালমান, “শঙ্কা ছিল সেমিফাইনাল নিয়ে। বয়সে কম হলেও সিবগাত অনেক ভালো খেলে। ওর সাথে ২০১৬ সালে চট্টগ্রাম লিগে হেরেছি। লিগামেন্টে সমস্যার কারণে ও আগের মত খেলতে পারেনি। এতে আমার জন্য জয় সহজ হয়ে গেছে।”

     

    বিডিস্পোর্টস২৪ ডটকম/এমএকে


অতিথি কলাম

সাক্ষাৎকার

স্পোর্টস ফ্যাশন


প্রবাসী তারকা

জেলা ক্রীড়া সংস্থা

বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থা

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২
১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
২০২১২২২৩২৪২৫২৬
২৭২৮২৯৩০৩১  


ক্রীড়া সাহিত্য

ব্যাডমিন্টন

আরচ্যারি

গল্‌ফ

ভারোত্তোলন

মহিলা ক্রীড়া সংস্থা