জয়ে চিটাগাং পর্ব শুরু স্বাগতিকদের – BD Sports 24
  • জয়ে চিটাগাং পর্ব শুরু স্বাগতিকদের

    November 24th, 2017

    ক্রীড়া প্রতিবেদক

    বিডিস্পোর্টস২৪ ডটকম

    চট্টগ্রাম, ২৪ নভেম্বর: ঢাকা পর্বে কোনো জয় পায়নি সিলেট সিক্সার্স ও চিটাগাং ভাইকিংস। অবশেষে নিজেদের মাঠে সিলেট সিক্সার্সকে ৪০ রানে হারিয়ে জয় দিয়ে চিটাগাং পর্ব শুরু করে স্বাগতিক দল। প্রথম মুখোমুখিতে গত ৭ নভেম্বর সিলেটে সিলেট সিক্সার্স-এর কাছে ৩৩ রানে হেরেছিল চিটাগাং ভাইকিংস। আজ জয়ের ফলে সিলেটের বিপক্ষে হারের প্রতিশোধটাও নিয়ে নিলো বন্দরনগরীর দলটি।

    সিলেট ৯ খেলায় ৭ পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থ স্থানে এবং চিটাগাং ভাইকিংস ৭ খেলায় ৫ পয়েন্ট ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে।

    ২১২ রান তাড়া করতে নেমে সিলেটের দুই ওপেনার শুরুটা করেছিলেন কিন্তু দারুণভাবে। ৪.১ ওভারে উদ্বোধনী জুটিতে আন্দ্রে ফ্লেচার ও গুনারত্নে ৪৩ রান করে বিচ্ছিন্ন হন। গুনারত্নে ৭ বলে ১০ রান করে আউট হন। এরপর আন্দ্রে ফ্লেচার ও বাবর আজম চিটাগাং ভাইকিংস বোলারদের তুলোধুনো করা শুরু করেন। মাত্র ৯.২ ওভারে ৮০ রানের পার্টনারশিপ গড়ে বিচ্ছিন্ন হয় এই জুটি। আন্দ্রে ফ্লেচার ৪৬ বলে ৮ বাউন্ডারি ও ৪ ছক্কায় ওই রান করেন। দলীয় রান তখন ১২৩।

    আন্দ্রে ফ্লেচারের বিদায়ের পর মাত্র ৩ রান যোগ করতেই সাজঘরে ফিরে বাবর আজম। ৩২ বলে ৪১ রান করে আউট হন বাবর আজম।

    পরবর্তীতে নামা ব্যাটসম্যানরা বিশেষ করে সাব্বির (৩), আবুল হাসান (০) ও টিম ব্রেসনান (২) আসা-যাওয়ার মিছিলে যোগ দিলে সিলেটের স্কোর দাঁড়ায় ১৬ ওভারে ৬ উইকেটে ১৩১ রান। জয়ের জন্য তখনো দরকার ৪ ওভারে ৮১ রান। যা অনেকটা কঠিনই ছিলো সিলেটের জন্য। এরপর ১৪৪ রানে ৮ রান করা অধিনায়ক নাসির হোসেন বিদায় নিলে সিলেটর পরাজয়টা সময়ের ব্যাপার হয়ে দাঁড়ায়। শেষ বলে নুরুল হাসান আউট হয়ে গেলে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৮ উইকেটে ১৭১ রানে থামে সিলেটের ইনিংস। ফলে চিটাগাং-এর কাছে ৪০ রানে হেরে যায় সিলেট। নুরুল হাসান ১৬ বলে ২৮ রান করে আউট হন।

    চিটাগাং ভাইকিংস-এর বোলারদের মধ্যে তাসকিন আহমেদ তিনটি, ভ্যান জাইল ও সৌম্য সরকার দুটি করে এবং সানজামুল ইসলাম একটি উইকেট নেন।

    এর আগে টস হেরে জহুর আহমদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেটে ২১১ রান করে চিটাগাং ভাইকিংস। ফলে জয়ের জন্য সিলেটের দরকার পড়ে ২১২ রান।

    শুরুটা ভালো না হলেও ৫ নম্বরে ব্যাট করতে নামা জিম্বাবুয়ের ক্রিকেটার সিকান্দার রাজার ৯৫ রানের বিধ্বংসী ইনিংসের ওপর ভর করে ২১১ রানের বড় সংগ্রহ দাঁড় করা চিটাগাং। ৪৫ বলে ৯টি চার ও ৬টি বিশাল ছক্কার সাহায্যে তার ইনিংসটি সাজান সিকান্দার রাজা। এছাড়া ওপেনার লুক রঞ্চির ২৫ বলে ৪১ ও স্টিয়ান ভ্যান জাইলের ২৬ বলে ৪০ রান উল্লেখযোগ্য।

    ২৬ রানে বিদায় নেন ওপেনার সৌম্য সরকার। মাত্র ১ রান করে তিনি। ৩৬ রানে সাজঘরে ফেরত যান ওয়ানডাউনে নামা এনামুল হক। ৩ রানের বেশি এগুতে পারেননি এনামুল। ব্যক্তিগত ৪১ রানে আউট হন লুক রঞ্চি। দলীয় রান তখন ৬৫। চতুর্থ উইকেট জুটিতে ভ্যান জাইল ও সিকান্দার রাজা মাত্র ৬.৪ ওভার মোকাবেলায় ৭৩ রানের পার্টনারশিপ গড়ে বড় স্কোরের জানান দেন। ভ্যান জাইল ২৬ বলে চারটি চার ও ও দুটি ছক্কায় ৪০ রান করে আউট হন।

    এরপর সিকান্দার রাজা নাজিবুল্লাহ জাদরানকে সাথে নিয়ে ৬.৩ ওভার মোকাবেলায় ৬৮ রানের আরও একটি পার্টনারশিপ গড়েন। ১৯.২ ওভারে চিটাগাং ততক্ষণে পৌঁছে যায় ২০৬ রানে। ৯৫ রান করে আউট হন সিকান্দার রাজা। মাত্র ৫ রানের জন্য সেঞ্চুরি বঞ্চিত হন তিনি। তবে এটি বিপিএলের এবারের আসরের ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ স্কোর। শেষদিকে নজিবুল্লাহ জাদরান ১৬ বলে অপ: ১৯ এবং রিসি ৪ রানে অপরাজিত থাকলে ২০ ওভারে ২১১ রান করে চিটাগাং। এটিও এবারের আসরের দলীয় সর্বোচ্চ স্কোর। সিলেট সিক্সার্স চিটাগাং ভাইকিংস-এর বিপক্ষে সিলেটে করা ৬ উইকেটে ২০৫ রানই ছিলো দলীয় সর্বোচ্চ স্কোর।

    ম্যাচসেরা হন বিজয়ী দলের জিম্বাবুয়ের ক্রিকেটার সিকান্দার রাজা।

     

    বিডিস্পোর্টস২৪ ডটকম/এমএকে


অতিথি কলাম

সাক্ষাৎকার

স্পোর্টস ফ্যাশন


প্রবাসী তারকা

জেলা ক্রীড়া সংস্থা

বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থা

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০  


ক্রীড়া সাহিত্য

ব্যাডমিন্টন

আরচ্যারি

গল্‌ফ

ভারোত্তোলন

মহিলা ক্রীড়া সংস্থা