টেস্ট সিরিজে হতাশা কাটানোর মিশন – BD Sports 24
  • টেস্ট সিরিজে হতাশা কাটানোর মিশন

    January 30th, 2018

    মোয়াজ্জেম হোসেন রাসেল, বিশেষ প্রতিনিধি

    বিডিস্পোর্টস২৪ ডটকম

    চট্টগ্রাম, ৩০ জানুয়ারি: একেই বলে ভাগ্য। ২০০৯ সালে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে জাতীয় দলের অধিনায়ক হিসেবে অভিষেক হয়েছিল মাশরাফি বিন মর্তুজার। কিন্তু ইনজুরির কারণে নেতৃত্বভার চলে আসে সাকিব আল হাসানের উপর। ভারপ্রাপ্ত হিসেবে টেস্ট ম্যাচের পাশাপাশি প্রথমবারের মতো সিরিজও জিতে নেয় বাংলাদেশ। যদিও ক্যারিবীয় সেই দলটি ছিল খর্বশক্তির। তবুও দেশের বাইরে প্রথমবারের মতো টেস্ট ও ওয়ানডে সিরিজ জিতে ইতিহাস গড়ে বাংলাদেশ। তার ঠিক কিছুদিন পূর্বে জাতীয় দলের নেতৃত্বে এসেছিলেন মাশরাফি ও সাকিব।

    এবার যেন একই দৃশ্যের পুনর্মঞ্চায়ন হলো। নিয়মিত অধিনায়ক সাকিব আল হাসানের ইনজুরিতে ভারপ্রাপ্ত হিসেবে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের হাতেই চলে এসেছে কাপ্তানী। ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনাল ম্যাচে ইনজুরির কারণে হঠাৎই দলের বাইরে চলে যান সদ্যই অধিনায়কত্ব ফিরে পাওয়া সাকিব। আরো একবারের মতো শিরোপা জয়ের খুব কাছে গিয়েও তা ছোয়া হয়নি বাংলাদেশের। এর আগে দুটি আসরের ফাইনালে উঠে ব্যর্থ হয়েছিল বাংলাদেশ। যদিও অনেক সমীকরণের বিচারে এবারের শিরোপাটি প্রাপ্য ছিল বাংলাদেশের। কিন্তু টানা দুই ম্যাচ হেরে আরো একবারের মতো রানার্সআপ হয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয় মাশরাফি বাহিনীকে। অথচ কি দুর্দান্তভাবেই না শুরু করেছিল বছরের প্রথম আসর। টানা দুই ম্যাচ জিতে সবার আগে ফাইনাল নিশ্চিত করার পরের ম্যাচটিও জয় আসে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে। কিন্তু লিগ পর্বের শেষ ম্যাচে শ্রীলংকার বিপক্ষে পথ হারিয়ে বসে স্বাগতিকরা। মোটে ৮৪ রানে অলআউট হয়ে জাতিকে লজ্জায় ফেলে লালসবুজ প্রতিনিধিরা।

    এরপর ফাইনালে যেন আরো একরাশ হতাশাই জমানো ছিল। হলোও তাই। দেশের মাটিতে টানা চতুর্থবার ফাইনালে হেরে আবারো কেঁদেই মাঠ ছাড়তে হলো ক্রিকেটারদের। এবার তাতে প্রলেপ দেওয়ার সুযোগ এসেছে টেস্ট সিরিজে। কারণ শ্রীলংকার বিপক্ষে সর্বশেষ টেস্ট সিরিজটি ড্র করেছিল মুশফিকুর রহীমের দল। লংকার মাটিতে বছর দেড়েক আগে শততম টেস্টও খেলে বাংলাদেশ দল। সেখানেই জয়ের দেখা পায় সফরকারীরা। এবার সেই ধারা ধরে রেখেই মাঠে নামতে যাচ্ছে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দল। ঘরের মাঠে শ্রীলংকার সঙ্গে টেস্ট সিরিজ জিততে চায় বাংলাদেশ।

    প্রথমবারের মতো টেস্টের অধিনায়কত্ব পাওয়া রিয়াদ জানিয়েছেন, ’প্রথমবারের মতো টেস্টে অধিনায়কত্ব করতে পেরে আমি রোমাঞ্চিত। সে কারণেই নিজের অভিষেকটাকে স্মরণীয় করে রাখতে আমরা এই টেস্ট জিততে চাই। ঘরের মাঠে ভালো ক্রিকেট খেলতে চাই’।

    টেস্ট ক্রিকেটে বরাবরই বাংলাদেশ ঘরের মাঠে স্পিনারদের ওপর নির্ভর করে থাকে। সাকিব আল হাসান ইনজুরির কারণে দলের বাইরে চলে যাওয়ায় সানজামুল ইসলাম ও তানবীর হায়দারকে ডাকা হয়েছে। সানজামুলের টেস্ট খেলার অভিজ্ঞতা নেই। সে একটা টেস্ট ম্যাচও খেলেনি। দলে তাইজুল ইসলামও রয়েছে। যদিও সে দক্ষিণ আফ্রিকায় ভালো করেনি। তাই স্পিন আক্রমণে একজন অতিরিক্ত অভিজ্ঞ স্পিনারের প্রয়োজন দেখা দেয়। সেই দিকটি বিবেচনা করেই বর্ষীয়ান আব্দুর রাজ্জাককে ডাকা হয়েছে। তার অভিজ্ঞতা আছে। ঘরোয়া ক্রিকেটে ভালো খেলেছে। আগেও সে টেস্ট ম্যাচ খেলেছে। পরিকল্পনার অংশ হিসেবেই রাজ্জাককে ডাকা হয়েছে বলে জানা গেছে।

    এদিকে ত্রিদেশীয় সিরিজে নিজেদের চাহিদামতো উইকেট চেয়েও পায়নি বাংলাদেশ। টেস্ট সিরিজে এমনটি হতে পারে কিনা সেই সন্দেহ করছেন কেউ কেউ। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ত্রিদেশীয় সিরিজের ফাইনালে স্বাগতিকরা যে উইকেট চেয়েছিল তা পায়নি। বরং হয়েছে উল্টো! ম্যাচে সফরকারী লঙ্কানদের শারীরিক ভাষা ও পারফরম্যান্স দেখে মনে হয়েছে, নিজেদের কন্ডিশনেই খেলছিল দিনেশ চান্দিমাল ও তার দল। উইকেটটি যেন তাদের জন্যই প্রস্তুত করেছেন বিসিবির লঙ্কান কিউরেটর গামিনি ডি সিলভা! আপাতদৃষ্টিতে বিষয়টি এমন, লঙ্কান টিম ম্যানেজমেন্ট গামিনিকে যেভাবে উইকেট প্রস্তুত করতে নির্দেশ দিয়েছে সেভাবেই তিনি তা করেছেন। আর তারা একাদশও সাজিয়েছে পিচ মোতাবেক। ফলে চূড়ান্ত ফলাফল তাদের পক্ষেই গিয়েছে। দুঃখজনক হলেও সত্য, সারা দুনিয়াতেই উইকেট থেকে ঠিক এই সুবিধাটিই স্বাগতিক দেশ পেয়ে থাকে। কিন্তু হায় কিউরেটর যে লঙ্কান! সন্দেহের বাস্প তাই ম্যাচের ফলাফলের পর থকেই উড়তে শুরু করেছে। পরে তা ঘূর্ণিভূত হতে শুরু করেছে যখন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) বিভিন্ন সূত্র থেকে জানা গেল, ফাইনাল ম্যাচের আগের দিন লঙ্কান টিম ম্যানেজমেন্টের সঙ্গে একাডেমি ভবনে প্রায় ঘণ্টা দেড়েক সভা করেছেন গামিনি। শুধু তাই নয়, ম্যাচের আগের দিন তিনি উইকেটে পানিও দিয়েছেন যা সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ। এখন ঘরের শত্রু বিভীষণ হলে তো বিপদের আর পারাপার থাকে না। এসবকে খেলার অংশ মেনে ভালো ফলাফলের প্রত্যাশায় টেস্ট সিরিজ করতে চায় বাংলাদেশ। ত্রিদেশীয় সিরিজের কষ্ট ভুলতে যে ম্যাচ জয়ের বিকল্প নেই স্বাগতিক দলের সামনে।

     

    বিডিস্পোর্টস২৪ ডটকম/বিকে


অতিথি কলাম

সাক্ষাৎকার

স্পোর্টস ফ্যাশন


প্রবাসী তারকা

জেলা ক্রীড়া সংস্থা

বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থা

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩১৪১৫১৬
১৭১৮১৯২০২১২২২৩
২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০


ক্রীড়া সাহিত্য

ব্যাডমিন্টন

আরচ্যারি

গল্‌ফ

ভারোত্তোলন

মহিলা ক্রীড়া সংস্থা