প্রোটিয়াদের কাছে বাংলাদেশ হোয়াইটওয়াশ – BD Sports 24
  • প্রোটিয়াদের কাছে বাংলাদেশ হোয়াইটওয়াশ

    October 23rd, 2017

    ক্রীড়া ডেস্ক :
    দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে টেস্ট সিরিজের মত ওয়ানডে সিরিজেও প্রোটিয়াদের কাছে হোয়াইটওয়াশ হয়েছে বাংলাদেশ। সফরের শেষ দুই ম্যাচ সিরিজের টি-টোয়েন্টিতে এখন হোয়াইটওয়াশের শঙ্কা জেগে উঠছে। আগামী ২৬ অক্টোবর থেকে এ সিরিজ শুরু হবে।

    ইস্ট লন্ডনে আজ রোববার তিন ম্যাচ সিরিজের শেষ ওয়ানডে সফরকারীদের ২০০ রানে হারায় স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকা। এর আগে প্রোটিয়ারা কিম্বার্লিতে প্রথম ওয়ানডে ১০ উইকেটে এবং পার্লে ১০৪ রানে বাংলাদেশকে পরাজিত করে। ফলে সিরিজের টানা তিন ম্যাচ জিতে দক্ষিণ আফ্রিকা টাইগারদের হোয়াইটওয়াশ করে।

    দক্ষিণ আফ্রিকার অধিনায়ক ফাফ ডু-প্লেসিস টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্বান্ত নেন এবং নির্ধারিত ৫০ ওভার শেষে ৬ উইকেটে ৩৬৯ রান সংগ্রহ করে। বাংলাদেশের বিপক্ষে দক্ষিণ আফ্রিকার এটি সর্বোচ্চ রানের ইনিংস। এর আগে বাংলাদেশের বিপক্ষে তাদের সর্বোচ্চ রান ছিল ৩৫৮। আজ প্রতিপক্ষের বিপক্ষে সর্বোচ্চ ৯১ রান করেন প্লেসিস। তবে ৫৯ রানে মেহেদী হাসান মিরাজ ও ৬৬ রানে তাসকিন আহমেদ দুটি করে উইকেট শিকার করেন।

    এদিকে স্বাগতিকদের চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দেওয়া টার্গেটে খেলতে নেমে মাশরাফিবাহিনী ৪০.৪ ওভারে ১৬৯ রানে সবাই আউট হয়ে যায়। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে যখন একের পর এক প্রথমসারির ব্যাটসম্যানরা দায়িত্বহীনতার পরিচয় দিচ্ছিলেন, ঠিক তখনই দলের বিপর্যয়ে হাল ধরার চেষ্টা করেন বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান।

    এক পাশ আগলে রেখে তিনি দলের ব্যাটিং বিপর্যয়রোধ করার চেষ্টা করলেও অপর প্রান্তে ধারাবাহিক উইকেট পতন ঠেকানো যাচ্ছিল না। এমন ধ্বসস্তুপের মধ্যেই তিনি নিজের ৩৫তম হাফসেঞ্চুরি তুলে নেন। এ ইনিংস  সাজান ছয়টি চারের মারসহ ৬৩ বলে। ১৮০ ওয়ানডে খেলা সাকিবের সর্বোচ্চ ইনিংস ১৩৪ রান। ৩৪ দশমিক ৬০ গড়ে সাকিবের ৩৫টি হাফসেঞ্চুরির পাশাপাশি রয়েছে ৭টি সেঞ্চুরিও।

    সাকিবের পাশাপাশি সাব্বির রহমানও দলের বিপর্যয় ঠেকানোর চেষ্টা করেন। তিনি ৩৯ রান করেন। প্যাটারসন ৪৪ রানে ৩টি এবং ১৮ রানে এইডেন মার্করাম ও ২৭ রানে ইমরান তাহির দুটি করে উইকেট লাভ করেন।

    স্কোর কার্ড :
    দক্ষিণ আফ্রিকা :
    বাভুমা ক লিটন ব মিরাজ ৪৮
    ডি কক ক এন্ড ব মিরাজ ৭৩
    ডু-প্লেসিস আহত অবসর ৯১
    মার্করাম রান আউট (ইমরুল) ৬৬
    ডি ভিলিয়ার্স ক মাশরাফি ব রুবেল ২০
    বেহারদিয়ান অপরাজিত ৩৩
    মুল্ডার এলবিডব্ল্ ুব তাসকিন ২
    ফেলুকুয়াও ক মুশফিকুর ব তাসকিন ৫
    রাবাদা অপরাজিত ২৩
    অতিরিক্ত (লে বা-৩, ও-৫) ৮
    মোট (৬ উইকেট, ৫০ ওভার) ৩৬৯
    উইকেট পতন : ১/১১৯ (বাভুমা), ২/১৩২ (ডি কক), ২/২৮৩ (ডু-প্লেসিস, আহত অবসর), ৩/২৮৯ (মার্করাম), ৪/৩২৫ (ডি ভিলিয়ার্স), ৫/৩২৯ (মুল্ডার), ৬/৩৩৫ (ফেলুকুয়াও)।
    বাংলাদেশ বোলিং :
    মাশরাফি : ৯-০-৬৯-০ (ও-১),
    মিরাজ : ১০-০-৫৯-২,
    রুবেল : ১০-০-৭৫-১,
    সাকিব : ১০-০-৫৬-০ (ও-২),
    তাসকিন : ৭-০-৬৬-২ (ও-১),
    মাহমুদুল্লাহ : ৩-০-৩৩-০ (ও-১)।
    সাব্বির : ১-০-৮-০।

    বাংলাদেশ :
    ইমরুল কায়েস ক বেহারদিয়ান ব প্যাটারসন ১
    সৌম্য সরকার ক মার্করাম ব রাবাদা ৮
    লিটন দাস এলবিডব্লু ব প্যাটারসন ৬
    মুশফিকুর ক রাবাদা ব ফেলুকুয়াও ৮
    সাকিব ক ডুমিনি ব মার্করাম ৬৩
    মাহমুদুল্লাহ এলবিডব্লু ব মুল্ডার ২
    সাব্বির রহমান ক ডি কক ব মার্করাম ৩৯
    মেহেদি হাসান মিরাজ ক ডি ভিলিয়ার্স ব তাহির ১৫
    মাশরাফি ক ডি কক ব প্যাটারসন ১৭
    তাসকিন ডুমিনি ব তাহির ২
    রুবেল অপরাজিত ০
    অতিরিক্ত (বা-১, লে বা-১, নো-১, ও-৫) ৮
    মোট (অলআউট, ৪০.৪ ওভার) ১৬৯
    উইকেট পতন : ১/৩ (ইমরুল), ২/১৫ (লিটন), ৩/২০ (সৌম্য), ৪/৫১ (মুশফিকুর), ৫/৬১ (মাহমুদুল্লাহ), ৬/১২৮ (সাকিব), ৭/১৩৫ (সাব্বির), ৮/১৬৩ (মাশরাফি), ৯/১৬৯ (তাসকিন), ১০/১৬৯ (মিরাজ)।
    দক্ষিণ আফ্রিকা বোলিং :
    রাবাদা : ৮-১-৩৩-১ (ও-২),
    প্যাটারসন : ৯-০-৪৪-৩ (ও-১),
    মুল্ডার : ৮-০-৩২-১ (ও-১),
    ফেলুকুয়াও : ৪-১-১৩-১,
    তাহির : ৮.৪-১-২৭-২ (ও-১),
    মার্করাম : ৩-০-১৮-২।

    ফল : দক্ষিণ আফ্রিকা ২০০ রানে জয়ী।
    সিরিজ : তিন ম্যাচের সিরিজ ৩-০ ব্যবধানে জিতলো দক্ষিণ আফ্রিকা।
    ম্যাচ সেরা : ফাফ ডু প্লেসিস (দক্ষিণ আফ্রিকা)।
    সিরিজ সেরা : কুইন্টন ডি কক (দক্ষিণ আফ্রিকা)।
    বিডিস্পোর্টস২৪.কম/এসটি


অতিথি কলাম

সাক্ষাৎকার

স্পোর্টস ফ্যাশন


প্রবাসী তারকা

জেলা ক্রীড়া সংস্থা

বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থা

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮