ফাইনালে খেলার আশা জিইয়ে রাখলো শ্রীলংকা – BD Sports 24
  • ফাইনালে খেলার আশা জিইয়ে রাখলো শ্রীলংকা

    January 21st, 2018

    ক্রীড়া প্রতিবেদক

    বিডিস্পোর্টস২৪ ডটকম

    ঢাকা, ২১ জানুয়ারি: ত্রিদেশীয় সিরিজে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে এসে প্রথম জয়ের মুখ দেখেছে দ্বীপরাষ্ট্র শ্রীলংকা। আজ মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ফিরতি ম্যাচে জিম্বাবুয়েকে ৫ উইকেটে পরাজিত করেছে তারা। ফলে ফাইনালে খেলার আশা জিইয়ে রাখলো চন্ডিকা হাথুরুসিংহের শিষ্যরা।

    উল্লেখ্য, শ্রীলংকা তাদের প্রথম দুই ম্যাচে জিম্বাবুয়ে ও বাংলাদেশের কাছে হারের স্বাদ পেয়েছিল।

    টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক গ্রায়েম ক্রেমার। এই টুর্নামেন্টে প্রথমবারের মত টস ভাগ্যে জিতলেন ক্রেমার। প্রথমে ব্যাট করার সুযোগটা কাজে লাগানোর চেষ্টা করেছেন জিম্বাবুয়ের দুই ওপেনার হ্যামিল্টন মাসাকাদজা ও সলোমন মির। ১০ ওভারে ৪৪ রানের জুটি গড়েন তারা।

    শুরুটা ভালো হলেও ৪৪ থেকে ৫৬ রানে পৌঁছাতেই ৩ উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়ে জিম্বাবুয়ে। তিনটি উইকেটই নিয়েছেন শ্রীলংকার মিডিয়াম পেসার থিসারা পেরেরা। দুই ওপেনার মাসাকাদজা ২০, মির ২১ ও তিন নম্বরে নামা ক্রেইগ আরভিন ২ রান করে সাজঘরে ফিরে যান।

    এরপর ব্যাট হাতে ব্যর্থতার পরিচয় দেন আগের ম্যাচের সেরা খেলোয়াড় সিকান্দার রাজা। তার ব্যাট থেকে আসে ৯ রান। ৭৩ রানে চতুর্থ উইকেট হারানোর পর দলকে সামনের দিকে এগিয়ে নেয়া দায়িত্ব পান সাবেক অধিনায়ক ব্রেন্ডন টেইলর ও ম্যালকম ওয়ালার। দায়িত্বটা যথাযথ পালনও করছিলেন তারা। ধীরে ধীরে দলের স্কোর বড় করছিলেন টেইলর ও ওয়ালার। কিন্তু ২৪ রানে থাকা ওয়ালারকে বিদায় দিয়ে শ্রীলংকাকে দারুণ এক ব্রেক-থ্রু এনে দেন বাঁ-হাতি স্পিনার লক্ষন সান্দাকান। পঞ্চম উইকেটে টেইলরের সাথে ৬৬ রান করেন ওয়ালার।

    এরপর টেইলর ৬৩তম বলে ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ৩৩তম হাফ-সেঞ্চুরি তুলে নেন। হাফ-সেঞ্চুরির পর ইনিংসটাকে লম্বা করতে পারেননি টেইলর। ৮০ বলে ৬ বাউন্ডারিতে নিজের নামের পাশে যোগ করেন ৫৮ রান।

    শেষ দিকে অধিনায়ক ক্রেমারের ৪২ বলে ৩৪ রানের পর ৬ ওভার বাকী থাকতেই ১৯৮ রানে অলআউট হয় জিম্বাবুয়ে।

    শ্রীলংকার পক্ষে থিসারা পেরেরা ৪টি ও নুয়ান প্রদীপ ৩টি উইকেট নেন।

    জয়ের জন্য ১৯৯ রানের টার্গেটে দলীয় ৩৩ রানে প্রথম উইকেট হারায় শ্রীলংকা। নামের পাশে ১৭ রান রেখে ডান-হাতি পেসার তেন্ডাই চাতারার শিকার হন উপল থারাঙ্গা। এরপর ৭০ রানের জুটিতে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নিজেদের দিকেই রাখেন আরেক ওপেনার কুশল পেরেরা ও কুশল মেন্ডিস। ম্যাচের লড়াই থেকে যখন পিছিয়ে পড়ে জিম্বাবুয়ে, এমন সময় দুর্দান্ত এক স্পেলে দলকে খেলায় ফেরান ডান-হাতি পেসার ব্লেসিং মুজারাবানি। ১৪ রানের ব্যবধানে শ্রীলংকার তিন ব্যাটসম্যানকে ফিরিয়ে দেন তিনি।

    ৪৯ রানে আউট হন পেরেরা। তার ৫৭ বলের ইনিংসে ৪টি চার ও ১টি ছক্কার মার রয়েছে। ৪ বাউন্ডারিতে ৪৪ বলে ৩৬ রান করা মেন্ডিসকেও প্যাভিলিয়নে ফেরত পাঠান মুজারাবানি। দলীয় ১০৩ রানে পেরেরা, ১১০ রানে মেন্ডিসকে শিকারের পর ১১৭ রানে নিরোশান ডিকবেলাকে ফিরিয়ে দেন মুজারাবানি। ৭ রান করেন ডিকবেলা।

    ৩ উইকেট হারিয়ে ব্যাকফুটে চলে যায় শ্রীলংকা। তবে পঞ্চম উইকেটে দেখেশুনে খেলা শুরু করেন অধিনায়ক দিনেশ চান্ডিমাল ও আসলে গুনারত্নে। ৯ রান করে বিদায় নেন গুনারত্নে।

    এরপর ৬১ বলে অবিচ্ছিন্ন ৫৭ রানের জুটি গড়ে এবারের আসরে দলকে প্রথম জয়ের স্বাদ দেন চান্ডিমাল ও থিসারা পেরেরা। চান্ডিমাল ৩৮ ও পেরেরা ৩৯ রানে অপরাজিত থাকেন। জিম্বাবুয়ের মুজারাবানি ৩টি উইকেট নেন।

    ম্যাচসেরা হন লঙ্কান বোলার থিসারা পেরেরা।

    আগামী ২৩ জানুয়ারি বাংলাদেশের বিপক্ষে এবারের লিগ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচ খেলবে জিম্বাবুয়ে। আর আগামী ২৫ জানুয়ারি লিগ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচ শ্রীলংকা মুখোমুখি হবে স্বাগতিক বাংলাদেশের।

     

    বিডিস্পোর্টস২৪ ডটকম/এমএকে


অতিথি কলাম

সাক্ষাৎকার

স্পোর্টস ফ্যাশন


প্রবাসী তারকা

জেলা ক্রীড়া সংস্থা

বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থা

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮