মাশরাফির অনন্য রেকর্ড – BD Sports 24
  • মাশরাফির অনন্য রেকর্ড

    December 12th, 2017

    ক্রীড়া প্রতিবেদক

    বিডিস্পোর্টস২৪ ডটকম

    ঢাকা, ১২ ডিসেম্বর: অধিনায়ক হিসেবে বিপিএলের পাঁচ আসরের চারটিতেই ট্রফি জয়ের অনন্য রেকর্ডের জন্ম দিয়েছেন ‘নড়াইল এক্সপ্রেস’ খ্যাত মাশরাফি বিন মর্তুজা। সেই সাথে ফাইনাল খেলা সবকটিতেই জয়লাভ করে শতভাগ জয়ের রেকর্ডও গড়েছেন তিনি। গত পাঁচ আসরের চারটিতেই তার অধিনায়কত্বের দল ফাইনালে খেলে এবং ট্রফি জয় করে।

    শুরু থেকেই টানা তিন আসরে অধিনায়ক হিসেবে বিপিএলে চ্যাম্পিয়ন হয়ে হ্যাটট্রিক শিরোপা জয়ের কৃতিত্ব দেখান মাশরাফি।

    ২০১২ সালের প্রথম আসরের ফাইনালে মাশরাফির নেতৃত্বে ঢাকা গ্লাডিয়েটর্স ৮ উইকেটে বরিশাল বুলসকে পরাজিত করে চ্যাম্পিয়ন হয়। প্রথমে ব্যাট করা বরিশাল বুলসের ৭ উইকেটে ১৪০ রানের জবাবে ব্যাট করতে নেমে মাশরাফির ঢাকা গ্লাডিয়েটর্স ১৫.৪ ওভারে ২ উইকেটে ১৪৪ রান করে ৮ উইকেটের সহজ জয়ে বিপিএলের প্রথম আসরর ট্রফি জয় করে।

    ২০১২-১৩ মৌসুমের ফাইনালে মাশরাফির ঢাকা গ্লাডিয়েটর্স ৫২ রানে চিটাগাং কিংসকে পরাজিত করে টানা দ্বিতীয়বারের মতো ট্রফি জয় করে। প্রথমে ব্যাট করে ঢাকার করা ৭ উইকেটে ১৭৫ রানের জবাবে ১৬.৫ ওভারে চিটাগাং কিংস-এর ইনিংস ১২৩ রানে গুটিয়ে গেলে ৫২ রানের জয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় ঢাকা গ্ল্যাডিয়েটর্স।

    এরপর ২০১৫-১৬ মৌসুমে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সকে নেতৃত্ব দেন মাশরাফি। ওই আসরেও ট্রফি জয় করে মাশরাফির কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। ফাইনালে ৩ উইকেটে বরিশাল বুলসকে পরাজিত করে অধিনায়ক হিসেবে হ্যাটট্রিক শিরোপা জয়ের অনন্য নজির গড়েন মাশরাফি। ফাইনালে বরিশাল বুলসের ৪ উইকেটে ১৫৬ রানের জবাবে ৭ উইকেটে ১৫৭ রান করায় ৩ উইকেটে বরিশাল বুলসকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন হয় মাশরাফির কুমিল্লা।

    চতুর্থ আসরে ফাইনালে ওঠতে পারেনি তার দল। এবার পঞ্চম আসরে রংপুর রাইডার্সের নেতৃত্ব পান মাশরাফি। গ্রুপ পর্বের ১২ খেলায় ৬ জয়ে চতুর্থ দল হিসেবে সুপার ফোর নিশ্চিত করে রংপুর। এরপর এলিমিনেটরে খুলনা টাইটান্সকে ৮ উইকেটে হারিয়ে দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে খেলার যোগ্যতা অর্জন করে। এরপর দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সকে ৩৬ রানে হারিয়ে দলকে নিয়ে যান ফাইনালে।

    এবার ফাইনালে তার দল রংপুর রাইডার্স গত আসরের চ্যাম্পিয়ন ঢাকা ডায়নামাইটসকে ৫৭ রানে পরাজিত করে চ্যাম্পিয়ন হয়। প্রথমে ব্যাট করতে নেমে রংপুর রাইডার্স ক্রিস গেইল ও ব্রেন্ডন ম্যাককালামের ব্যাটিং তাণ্ডবে ১ উইকেটে ২০৬ রানের বড় স্কোর গড়ে। জবাবে ঢাকার ইনিংস ৯ উইকেটে ১৪৯ রানের বেশি এগুতে না পারায় ৫৭ রানে জিতে যায় মাশরাফির রংপুর রাইডার্স।

    এরফলে অধিনায়ক হিসাবে বিপিএলের ফাইনালে ওঠা চার আসরের সবকটিতেই জয়ী হয়ে শতভাগ জয়ের রেকর্ডের জন্ম দেন মাশরাফি বিন মর্তুজা।

     

    বিডিস্পোর্টস২৪ ডটকম/এমএকে


অতিথি কলাম

সাক্ষাৎকার

স্পোর্টস ফ্যাশন


প্রবাসী তারকা

জেলা ক্রীড়া সংস্থা

বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থা

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১