মুশফিকুর রহীমের অসাধারণ ব্যাটিংয়ে অবিশ্বাস্য জয় টাইগারদের – BD Sports 24
  • মুশফিকুর রহীমের অসাধারণ ব্যাটিংয়ে অবিশ্বাস্য জয় টাইগারদের

    March 10th, 2018

    ক্রীড়া ডেস্ক

    বিডিস্পোর্টস২৪ ডটকম

    কলম্বো, ১০ মার্চ:  নিদাহাস ট্রফিতে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ভারতের কাছে ৬ উইকেটে হারলেও দ্বিতীয় ম্যাচে স্বাগতিক শ্রীলংকাকে ৫ উইকেটে হারিয়ে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছে টাইগাররা। টি-২০তে এদিন রেকর্ড ২১৫ রান তাড়া করে জিতে লাল-সবুজ পতাকাধারীরা। মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহীমের হার না মানা ৭২ রানের অসাধারণ ইনিংসের সুবাদে লঙ্কানদের বিপক্ষে ৫ উইকেটের অবিশ্বাস্য জয় পায় বাংলাদেশ।

    মুশফিকুর রহীমের টি-২০ ক্যারিয়ার সেরা ব্যাটিংয়ে ২ বল বাকি থাকতেই ৫ উইকেটে ২১৫ রান স্কোরবোর্ডে জমা করে বাংলাদেশ। ফলে ৫ উইকেটে জিতে যায় কোর্টনি ওয়ালশের শিষ্যরা। মুশফিকুর রহীম মাত্র ৩৫ বলে ৫টি দৃষ্টিনন্দন বাউন্ডারি এবং ৪টি বিশাল ছক্কার সাহায্যে ৭২ রানে অপরাজিত থাকেন। এতদিন টি-২০তে মুশফিকুর রহীমের সর্বোচ্চ স্কোর ছিল ৬৬। এদিন সেই স্কোরকে টপকে গেলেন ছোট-খাট গড়নের টাইগার এই ক্রিকেটার। এদিন ক্যারিয়ারের তৃতীয় ফিফটির দেখা পান তিনি।

    ২১৫ রানের বড় লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে উদ্বোধনী জুটিতে তামিম ইকবাল ও লিটন দাস ৭৪ রান তুলে দারুণ সূচনা এনে দেন। ৫.৫ ওভারে ৭৪ রান আসে উদ্বোধনী জুটিতে। লিটন দাস ছিলেন অত্যন্ত মারমুখী। ১৯ বলে দুই চার ও ৫ ছক্কায় ৪৩ রান করে আউট হন লিটন দাস।

    দ্বিতীয় উইকেটে ওপেনার তামিম ইকবাল ও সৌম্য সরকার ২৬ রানের পার্টনারশিপ গড়েন। ২২ বলে ২৬ রান আসে এই জুটিতে। তামিম ইকবাল ২৯ বলে ৬ চার ও এক ছক্কায় ৪৭ রান করেন।

    তৃতীয় উইকেটে সৌম্য সরকার ও মুশফিকুর রহীম ৫১ রানের আরো একটি পার্টনারশিপ গড়েন। সৌম্য সরকার ২২ বলে ২৪ রান করে আউট হন। সৌম্য সরকারের বিদায়ের পর মুশফিকুর রহীমের সাথে জুটি বাধেন অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। এই জুটি ৪২ রান যোগ করে বিচ্ছিন্ন হয়। মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ১১ বলে এক চার ও এক ছক্কায় ২০ রান করেন।

    এদিন বাংলাদেশের মারকুটে ব্যাটসম্যান সাব্বির রহমান ব্যাট হাতে সুবিধা করতে পারেননি। ২ বল মোকাবেলায় কোনো রান না করেই রান আউটের শিকার হন। দলীয় রান তখন ১৯৭।

    জয়ের জন্য টাইগারদের দরকার ১০ বলে ১৮ রান। বাকি কাজটুকু সারতে মুশফিকুর রহীমের কোনো বেগ পেতে হয়নি। ৮ বলে ১৮ রান যোগ করলে ২ বল বাকি থাকতেই জয় ধরা দেয় টাইগারদের। ১৮ রানই আসে মুশফিকুর রহীমের ব্যাট থেকে।

    লঙ্কান বোলারদের মধ্যে নুয়ান প্রদীপ দুটি এবং চামিরা ও থিসারা পেরেরা একটি করে উইকেট নেন।

    এর আগে নিদাহাস ট্রফি ত্রিদেশীয় সিরিজে নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে শ্রীলংকা ৬ উইকেটে ২১৪ রানের স্কোর গড়ে।

    উদ্বোধনী জুটিতে গুনাথিলাকা ও কুশল মেন্ডিস ৫৬ রানের পার্টনারশিপ গড়েন। গুনাথিলাকা ১০ বলে ২৬ রান করে সাজঘরে ফিরেন। দ্বিতীয় উইকেটে ‍কুশল মেন্ডিস ও কুশল পেরেরা ৮৫ রানের পার্টনারশিপ গড়েন। কুশল মেন্ডিস ৩০ বলে ২ চার ও ৫ ছক্কায় ৫৭ রান করেন। এটি তার টি-২০ ক্যারিয়ারের তৃতীয় ফিফটি।

    সানাকা ০ রানে বিদায় নিলে তৃতীয় উইকেট হারায় লঙ্কানরা। দলীয় রান তখন ১৪২। ১৫০ রানে অধিনায়ক দিনেশ চান্দিমালের বিদায়ে চতুর্থ উইকেটের পতন ঘটে স্বাগতিকদের। চান্দিমাল ২ রানের বেশি এগুতে পারেননি।

    পঞ্চম উইকেট জুটিতে কুশল পেরেরা ও উপল থারাঙ্গা ৫৫ রানের আরো একটি পার্টনারশিপ গড়লে ২০০ রান পার করে শ্রীলংকা। কুশল পেরেরা ৪৮ বলে ৪ বাউন্ডারি ও ২ ছক্কায় ৭৪ রান করে আউট হন। এদিন ৯ম টি-২০ ফিফটির দেখা পান তিনি।

    শেষদিকে উপল থারাঙ্গা ১৫ বলে ৩২ এবং জীবান মেন্ডিস ২ বলে ৬ রানে অপরাজিত থাকলে ৬ উইকেটে ২১৪ রান করে শ্রীলংকা।

    বাংলাদেশের বোলারদের মধ্যে মোস্তাফিজুর রহমান ৩টি, মাহমুদুল্লাহ ২টি এবং তাসকিন আহমেদ নেন এক উইকেট।

    ম্যাচসেরা হন বিজয়ী দলের মুশফিকুর রহীম।

    এ ম্যাচ জয়ের ফলে ১ খেলায় ২ পয়েন্ট নিয়ে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে রয়েছে বাংলাদেশ।

    আগামী ১২ মার্চ নিদাহাস ট্রফির চতুর্থ ম্যাচে মুখোমুখি হবে ভারত-শ্রীলংকা।

     

    বিডিস্পোর্টস২৪ ডটকম/বিকে


অতিথি কলাম

সাক্ষাৎকার

স্পোর্টস ফ্যাশন


প্রবাসী তারকা

জেলা ক্রীড়া সংস্থা

বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থা

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  


ক্রীড়া সাহিত্য

ব্যাডমিন্টন

আরচ্যারি

গল্‌ফ

ভারোত্তোলন

মহিলা ক্রীড়া সংস্থা