রাজশাহীকে হারিয়ে আবারো শীর্ষে খুলনা – BD Sports 24
  • রাজশাহীকে হারিয়ে আবারো শীর্ষে খুলনা

    November 27th, 2017

    ক্রীড়া প্রতিবেদক

    বিডিস্পোর্টস২৪ ডটকম

    চট্টগ্রাম, ২৭ নভেম্বর: খুলনার দেয়া ২১৪ রান তাড়া করতে নেমে রাজশাহীর ইনিংস ১৯ ওভারে ১৪৫ রানে গুটিয়ে গেলে ৬৮ রানের বড় জয় পায় খুলনা টাইটান্স। খুলনার বোলারদের দাপটে রাজশাহীর ব্যাটসম্যানরা বেশিক্ষণ ক্রিজে দাঁড়াতে পারেননি। বিশেষ করে পেসার শফিউল ২৬ রান খরচায় একাই শিকার করেন ৫ উইকেট। এছাড়া আবু জায়েদ দুটি এবং আর্চার, মাহামুদুল্লা ও আফিফ হোসেন একটি করে উইকেট শিকার করেন।

    এ ম্যাচ জয়ের ফলে ৯ খেলায় ১৩ পয়েন্ট নিয়ে আবারো পয়েন্ট তালিকার শীর্ষে ওঠেছে খুলনা টাইটান্স। অপরদিকে সমসংখ্যক খেলায় ৬ পয়েন্ট নিয়ে ষষ্ঠ স্থানে রয়েছে রাজশাহী। ৯ খেলা ৫ পয়েন্ট নিয়ে তলানিতে রয়েছে চিটাগাং ভাইকিংস।

    রাজশাহীর ইনিংস বলতে গেলে একাই ধসিয়ে দেন খুলনার পেসার শফিউল। শফিউল তার প্রথম ওভারের প্রথম বলে মুমিনুল হককে এবং এই ওভারের ৫ম বলে লুক রাইটকে সাজঘরে ফেরত পাঠান। তৃতীয় ওভারের ১ম বলে ড্যারেন সামিকে এবং দ্বিতীয় বলে মুশফিকুর রহীমকে আউট করে হ্যাটট্রিকের সম্ভাবনা জাগিয়ে তোলেন। কিন্তু পরের বলে কোনো উইকেট না পাওয়ায় হ্যাটট্রিকের দেখা পাননি শফিউল।

    চতুর্থ ওভারের শেষ বলে মো: সামির উইকেট শিকারের মধ্য দিয়ে এক ম্যাচে ৫ উইকেট শিকারের নজির গড়েন। এই প্রথমবারের মতো টি-২০ ক্রিকেটে ৫ উইকেট শিকার করলেন পেসার শফিউল।

    খুলনার বোলারদের দাপুটে বোলিংয়ে পাত্তাই পায়নি রাজশাহীর ব্যাটসম্যানরা। সর্বোচ্চ ৩৬ রান করেন রনি তালুকদার। এছাড়া মেহেদী হাসান মিরাজ ২৯, জাকির হাসান ১৯, সামি ১৮, ফ্রাঙ্কলিন ১৪, মুমিনুল ১১ ও মুশফিকুর রহীম ১১ রান করে আউট হন।

    এর আগে টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৫ উইকেটে ২১৩ রানের বড় স্কোর গড়ে খুলনা টাইটান্স। ফলে রাজশাহী কিংস-এর জেতার জন্য দরকার পড়ে ২১৪ রান।

    খুলনার অধিনায়ক মাহামুদুল্লাহ রিয়াদ এদিন ব্যাট করতে জ্বলে ওঠতে না পারলেও ওপেনার নাজমুল হোসেন শান্ত, আফিফ হোসেন, নিকোলাস পুরান ও ব্র্যাথওয়েটের ব্যাটিং নৈপুণ্যে ৫ উইকেটে ২১৩ রানের বড় স্কোর গড়ে খুলনা। মাহামুদুল্লাহ রিয়াদ ৩ বলে মাত্র ১ রান করে আউট হন।

    ওপেনার নাজমুল হোসেন শান্ত ৩১ বলে ৫ বাউন্ডারি ও ২ ছক্কায় ৪৯ রান করে আউট হন। এছাড়া চতুর্থ উইকেট জুটিতে আফিফ হোসেন ও নিকোলাস পুরান মাত্র ৭.১ ওভার মোকাবেলায় ৮৮ রানের পার্টনারশিপ বড় সংগ্রহে ভূমিকা রাখে। পুরান ২৬ বলে ৬ চার ও ৩ ছক্কায় ৫৭ রান করে আউট হন।

    শেষদিকে ব্র্যাথওয়েটের ১৪ বলে ৩৪ রানের ঝড়ো ইনিংস উপহার দেন। এছাড়া আফিফ হোসেন ৩৮ বলে ৫ ছক্কায় ৫৪ রানে অপরাজিত থাকেন।

    রাজশাহীর বোলারদের মধ্যে ফ্রাঙ্কলিন একাই শিকার করেন ৩ উইকেট।

    ম্যাচসেরা হন খুলনা টাইটান্স-এর ক্যারিবীয় ক্রিকেটার নিকোলাস পুরান।

     

    বিডিস্পোর্টস২৪ ডটকম/এমএকে


অতিথি কলাম

সাক্ষাৎকার

স্পোর্টস ফ্যাশন


প্রবাসী তারকা

জেলা ক্রীড়া সংস্থা

বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থা

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০৩১  


ক্রীড়া সাহিত্য

ব্যাডমিন্টন

আরচ্যারি

গল্‌ফ

ভারোত্তোলন

মহিলা ক্রীড়া সংস্থা