লড়াইটা এখন আবাহনী ও শেখ জামালের – BD Sports 24
  • লড়াইটা এখন আবাহনী ও শেখ জামালের

    January 3rd, 2018

    মোয়াজ্জেম হোসেন রাসেল, বিশেষ প্রতিনিধি

    বিডিস্পোর্টস২৪ ডটকম

    ঢাকা, ০৩ জানুয়ারি: জমজমাট লিগের প্রত্যাশা ছিল মৌসুমের শুরুতেই। বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগ ফুটবলের শেষদিকে এসে যেন কড়াভাবেই লাগছে উত্তাপের সেই আচ। সেখানে সতের রাউন্ড শেষে শীর্ষে ছিল চট্টগ্রাম আবাহনী। তাদের ঠিক পেছনেই ছিল ঢাকা আবাহনী লিমিটেড ও শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব লিমিটেড। এরপরই আসলে পাল্টে যেতে থাকে দৃশ্যপট। ঢাকার বাইরের একমাত্র প্রতিনিধি চট্টলার দলটিতে হারিয়ে লিগ লড়াই জমিয়ে তুলে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ। পরের ম্যাচগুলোতে একে একে পয়েন্ট হারাতে থাকে সাইফুল বারী টিটুর শিষ্যরা। আর দুই রাউন্ড বাকি থাকতেই লড়াইটা হয়ে যায় দু’দলের। আবারো ঢাকার কোনো দলের হাতেই উঠতে যাচ্ছে শিরোপা। রাজধানীর বাইরের প্রথম দল হিসেবে মামুনুল ইসলাম, জাহিদ হোসেনরা এবারো পারেনি শিরোপা ছুয়ে দেখতে। গত মৌসুমেও শিরোপা জয়ের খুব কাছে গিয়ে ঢাকার ভাইদের কাছে হেরে বেদনাবিধুর মনেই ফিরে যেতে হয়। অথচ লিগ শুরুর পর ১৭ রাউন্ড পর্যন্ত শীর্ষস্থান ধরে রেখেছিল চট্টগ্রাম আবাহনী। সর্বশেষ তিন ম্যাচে দুটি হার ও এক ড্রয়ে শিরোপার পথ কঠিন করে তুলেছে বন্দরনগরীর ক্লাবটি।

    উল্টো চিত্র ঢাকা আবাহনীর বেলায়। লিগের দ্বিতীয় পর্বে টানা আট ম্যাচ জিতে বিপিএলের লিগ টেবিলের শীর্ষেই ছিল পাঁচবারের চ্যাম্পিয়নরা। এখন চট্টগ্রাম আবাহনীকে হারিয়ে শিরোপা রেসে শক্তভাবেই আছে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবও। ২০ ম্যাচে ঢাকা আবাহনীর সংগ্রহ ৪৮ পয়েন্ট। ৪৭ পয়েন্ট নিয়ে ধানমন্ডির আকে জায়ান্টদের ঘাড়ে নিঃশ্বাস ফেলছে শেখ জামাল। ৪৩ পয়েন্ট সংগ্রহ করা চট্টগ্রাম আবাহনী আছে সেই তিনে। ৫ জানুয়ারি পরের রাউন্ডে আবাহনী মুখোমুখি হবে শেখ জামালের। এই ম্যাচটি দিয়েই নির্ধারিত হয়ে যাবে শিরোপার। জামাল হেরে গেলে লিগের উত্তাপ শেষ হয়ে যাবে কিছুটা আগেই। চ্যাম্পিয়ন হয়ে যাবে ঢাকা আবাহনী। সেক্ষেত্রে চট্টগ্রাম আবাহনী বাকি দুই ম্যাচ জিতলেও শিরোপা জয়ের ক্ষেত্রে তা কোনো ভূমিকাই রাখতে পারবে না। এর আগে ব্রাদার্স ইউনিয়নকে ২-০ গোলে হারিয়ে নিজেদের কাজটা সেরে রাখে ঢাকা আবাহনী।

    এদিকে একই দলের কোচ হয়েও গত মৌসুমের শেষে এসে শিরোপা খুব কাছে গিয়েও তা ছোয়া হয়নি সাইফুল বারী টিটুর। এবারো একই অভিজ্ঞতার অপেক্ষায় রয়েছে দলটি। শেখ জামালের বিপক্ষে মাঠে নামার আগে দেশের বর্ষীয়ান এ কোচ বলেছিলেন, সামনের তিনটা ম্যাচই ফাইনাল। একটা ম্যাচ হারলে শিরোপা লড়াই থেকে ছিটকে যেতে হবে। হয়েছেও তাই। দ্বিতীয় লেগে এসে আর আগের চট্টগ্রাম আবাহনীকে খুঁজে পাওয়া যায়নি। টিটুর দলের পয়েন্ট হারানোর সুযোগটাকে পুরোপুরি কাজে লাগিয়েছে আবাহনী ও জামাল। নতুন দুই কোচের অধীনে রীতিমতো দুর্দান্ত ফুটবল খেলছে ধানমন্ডির দুই জায়ান্ট। জোসেফ আফুসি চলে যাবার পর মাহবুব হোসেন রক্সি দায়িত্ব নেন শেখ জামালের।

    অন্যদিকে দ্রাগো মামিচ হঠাৎই বিদায় বলে দেওয়ায় গোলরক্ষক কোচ আতিকুর রহমানের কাঁধে এসে পড়ে দলের দায়িত্ব। এবার যেহেতু দুই দলের যে কোনো এক দল শিরোপা জিততে পারে সেক্ষেত্রে কোচ হিসেবে শিরোপা জয়ের অভিষেক হতে পারে এই দু’দলের। রক্সি এমনিতে বয়সভিত্তিক জাতীয় দল নিয়েই বেশি কাজ করেছেন। পেশাদার লিগে অনেকটা আচকমকাই অভিষেক হয়েছে তার। শিরোপা জিততে পারলে সেই যাত্রাটা যে মধুর হবে বলার অপেক্ষা রাখেনা।

    অন্যদিকে আবাহনীতে গোলরক্ষক কোচ হিসেবে আতিকুর রহমান রয়েছেন অনেকদিন থেকে। এবার লিগের মাঝপথেই সুযোগ এসেছে দলকে কোচিং করানোর। অমলেশ সেন বেঁচে থাকলে হয়তো সেই সুযোগটা পেতেন না আতিক। এবার যখন পেয়েছেন তখন তা পায়ে মাড়ানোর কোনো সুযোগ দিতে চান না। তাই ফুটবলপ্রেমীদের জন্য নেতিয়ে পড়া খেলাটিতে কিছুটা প্রাণসঞ্চার হতে পারে এবারের লিগ শেষে। কারণ লড়াইটা যে হচ্ছে হাড্ডাহাড্ডি।

     

    বিডিস্পোর্টস২৪ ডটকম/এমএকে


অতিথি কলাম

সাক্ষাৎকার

স্পোর্টস ফ্যাশন


প্রবাসী তারকা

জেলা ক্রীড়া সংস্থা

বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থা

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০
১১১২১৩১৪১৫১৬১৭
১৮১৯২০২১২২২৩২৪
২৫২৬২৭২৮২৯৩০  


ক্রীড়া সাহিত্য

ব্যাডমিন্টন

আরচ্যারি

গল্‌ফ

ভারোত্তোলন

মহিলা ক্রীড়া সংস্থা