৪ বছর পর প্রিমিয়ার হ্যান্ডবল লিগ! – BD Sports 24
  • ৪ বছর পর প্রিমিয়ার হ্যান্ডবল লিগ!

    July 19th, 2018

    ক্রীড়া প্রতিবেদক

    বিডিস্পোর্টস২৪ ডটকম

    ঢাকা, ১৯ জুলাই: ২০১৪ সালে শেষবার অনুষ্ঠিত হয়েছিল প্রিমিয়ার হ্যান্ডবল লিগ। এরপর গত ৩ বছর নানা কারণে প্রিমিয়ার হ্যান্ডবল লিগ আয়োজন করতে পারেনি ক্রীড়াঙ্গনে সবচেয়ে সক্রিয় বাংলাদেশ হ্যান্ডবল ফেডারেশন। অবশেষে ৪ বছর পর আগামী ২১ জুলাই শনিবার থেকে মাঠে গড়াচ্ছে ১০ দলের অংশগ্রহণে প্রিমিয়ার হ্যান্ডবল লিগ। শনিবার সকাল ১১টায় এই লিগের উদ্বোধন করবেন বিশিষ্ট ক্রীড়া সংগঠক হারুনুর রশিদ।

    আজ দুপুরে বাংলাদেশ অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশন অডিটোরিয়ামে সংবাদ সম্মেলনে প্রিমিয়ার হ্যান্ডবল লিগের বিস্তারিত তুলে ধরেন বাংলাদেশ হ্যান্ডবল ফেডারেশনের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান কোহিনুর। পৃষ্ঠপোষক প্রতিষ্ঠান মৌসুমি ইন্ডাস্ট্রিজের চেয়ারম্যান কাজী রাজিব উদ্দিন আহমেদ চপল, টুর্নামেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান এবিএম মাসুদ হোসেন, ভাইস চেয়ারম্যান এএসএম শিবলী নোমান এবং লিগ কমিটির সম্পাদক মো: জাহাঙ্গীর হোসেন এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

    ২০১৪ সালের পর কেন প্রিমিয়ার হ্যান্ডবল লিগ হয়নি এ ব্যাপারে কাজী রাজিব উদ্দিন আহমেদ চপল বলেন, গত ৪ বছর প্রিমিয়ার হ্যান্ডবল লিগ  কেন হয়নি তার জবাব আমরা দিতে পারবো না। তবে ৪ বছর প্রিমিয়ার লিগ আয়োজন করতে পারিনি এ জন্য আমি লজ্জিত। ভবিষ্যতে এই লিগ যাতে বন্ধ না হয় সে চেষ্টা থাকবে আমার।

    টুর্নামেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান এবিএম মাসুদ হোসেন বলেন, এই লিগটি সবচেয়ে জমজমাট লিগ। ২০১৪ সালে শেষবারের মতো হয়েছিল এই লিগের খেলা।

    লিগ কমিটির সম্পাদক মো: জাহাঙ্গীর হোসেন জানান, ১৯৮৪ সাল থেকে প্রিমিয়ার হ্যান্ডবল লিগ শুরু হয়েছিল। ‘কিউট প্রিমিয়ার হ্যান্ডবল লিগ-২০১৮’ নামে ১৭তম আসর বসছে এবার।  গত আসরে ৯টি দল অংশগ্রহণ করেছিল। এবার অংশগ্রহণকারী দলের সংখ্যা ১০টি। গত আসরের চ্যাম্পিয়ন নারিন্দা প্রগতি বয়েজ ক্লাব এবং রানার্স আপ প্রাইম স্পোর্টিং ক্লাব।

    অংশগ্রহণকারী দলগুলো এক ম্যাচে সর্বোচ্চ ৩ জন করে বিদেশি খেলোয়াড় খেলাতে পারবে। রেজিস্ট্রেশনও করাতে পারবে ৩ জন করে। খেলা শুরু হওয়ার ৩ ঘণ্টা আগে রেজিস্ট্রেশন কাজ সম্পন্ন করতে হবে ক্লাবগুলোকে। তিনি আরও জানান, গতবার বিদেশি খেলোয়াড়দের মধ্যে বেশিরভাগই ছিল ভারতের ।

    অংশগ্রহণকারী প্রতিটি দল পার্টিসিপেশন মানি পাচ্ছে। গত আসরের চ্যাম্পিয়ন দল নারিন্দা প্রগতি বয়েজ ক্লাব পাবে সর্বোচ্চ ৩০ হাজার টাকা। রানার্স আপ দল প্রাইম স্পোর্টিং ক্লাব পাবে ২০ হাজার টাকা। এছাড়া ঢাকা মেরিনার ইয়াংস ১৬ হাজার, আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ ১৫ হাজার, মেনজিস ক্রীড়াচক্র ১৪ হাজার, বাংলা ক্লাব ১৩ হাজার, সূর্যোদয় ক্রীড়াচক্র ১২ হাজার, ভিক্টোরিয়া স্পোর্টিং ক্লাব ১১ হাজার এবং ওল্ড আইডিয়ালস ও কোয়ান্টাম মেথডস ১০ হাজার টাকা করে পার্টিসিপেশন মানি পাবে।

    লিগ পদ্ধতির এই টুর্নামেন্টের সর্বোচ্চ পয়েন্ট অর্জনকারী দল শিরোপা জয় করবে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা দল রানার্স আপ হবে। এছাড়া এবারের লিগে পয়েন্ট তালিকার নিচের সারির দুটি দলের প্রিমিয়ার বিভাগ থেকে অবনমন ঘটবে।

    অংশগ্রহণকারী দলগুলো হলো: নারিন্দা প্রগতি বয়েজ ক্লাব, প্রাইম স্পোর্টিং ক্লাব, ঢাকা মেরিনার ইয়াংস ক্লাব, আরামবাগ ক্রীড়া সংঘ, মেনজিস ক্রীড়াচক্র, বাংলা ক্লাব, সূর্যোদয় ক্রীড়াচক্র, ভিক্টোরিয়া স্পোর্টিং ক্লাব, ওল্ড আইডিয়ালস ও কোয়ান্টাম মেথডস।

     

    বিডিস্পোর্টস২৪ ডটকম/এমএকে


অতিথি কলাম

সাক্ষাৎকার

স্পোর্টস ফ্যাশন


প্রবাসী তারকা

জেলা ক্রীড়া সংস্থা

বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থা

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  


ক্রীড়া সাহিত্য

ব্যাডমিন্টন

আরচ্যারি

গল্‌ফ

ভারোত্তোলন

মহিলা ক্রীড়া সংস্থা