মেসির জোড়া গোল: সহজ জয় বার্সার – BD Sports 24
  • মেসির জোড়া গোল: সহজ জয় বার্সার

    October 4th, 2018

    ক্রীড়া ডেস্ক

    বিডিস্পোর্টস২৪ ডটকম

    লন্ডন, ৪ অক্টোবর: মেসির জোড়া গোলের সুবাদে উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগে টটেনহ্যাম হটস্পারের বিপক্ষে ৪-২ গোলের সহজ জয় পেয়েছে স্প্যানিশ জায়ান্ট বার্সেলোনা।

    হুগো লোরিসের মত অভিজ্ঞ গোলরক্ষককে নিয়েও টটেনহ্যাম শেষ পর্যন্ত পেরে উঠেনি। মূলত মাত্র ৯২ সেকেন্ডের মধ্যে বার্সার ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড ফিলিপ কুটিনহোর গোলে বার্সেলোনার এগিয়ে যাওয়া স্পারসদের পুরো ম্যাচে আর ফিরতে দেয়নি। ২০০৫ সালের পরে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে এটাই বার্সেলোনার সবচেয়ে দ্রুততম গোল।

    ২৮ মিনিটে ক্রোয়েশিয়ার মিডফিল্ডার ইভান রাকিটিচের শক্তিশালী হাফ-ভলিতে ব্যবধান দ্বিগুণ হয় (২-০)। নাটকীয় দ্বিতীয়ার্ধে হ্যারি কেন টটেনহ্যামের হয়ে এক গোল পরিশোধ করলেও মেসির কল্যাণে তৃতীয় গোলের দেখা পায় বার্সা। এরিক লামেলার ডিফ্লেকটেড শট টটেনহ্যামকে আবারো লড়াইয়ে ফিরিয়ে আনলেও ম্যাচের শেষ মিনিটে মেসির দ্বিতীয় গোলে গ্রুপ পর্বে টানা দ্বিতীয় জয় তুলে নেয় বার্সেলোনা।

    অন্যদিকে টানা দুই ম্যাচে পরাজিত হয়ে তিন বছরের মধ্যে দ্বিতীয়বার গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায়ের শঙ্কায় পড়েছে টটেনহ্যাম। ইন্টার মিলানের বিপক্ষে মৌসুমের প্রথম ম্যাচে ২-১ গোলে পরাজিত হয়েছিল মরিসিও পোচেত্তিনোর দল। আগামী ২৪ অক্টোবর পরবর্তী ম্যাচে তাদের প্রতিপক্ষ পিএসভি এইনডোভেন। বার্সা ও ইন্টারের থেকে ৬ পয়েন্ট পিছিয়ে থাকায় পরের ম্যাচে টটেনহ্যামের জয়ের বিকল্প নেই।

    কালকের ম্যাচে মাত্র দুই মিনিটের মধ্যে মেসির সুবাদে বার্সা এগিয়ে যায়। সন হেয়াং-মিনের বাঁধা পেরিয়ে মেসি জোর্দি আলবার দিকে দারুণভাবে বল এগিয়ে দেন। টটেনহ্যাম ডিফেন্ডার কিয়েরান ট্রিপারের পাশ কাটিয়ে আলবা কুটিনহোর দিকে বল বাড়িয়ে দিলে সাবেক এই লিভারপুল ফরোয়ার্ড জোড়ালো শটে বার্সেলোনাকে এগিয়ে দেন। ফ্রান্সের বিশ্বকাপ জয়ী দলের অধিনায়ক লোরিসের এটি ছিল আগস্টের পর প্রথম ম্যাচ। থাইয়ের ইনজুরির কারণে তিনি এতদিন বিশ্রামে ছিলেন। বার্সেলোনার প্রথম গোলটির পেছনে লোরিসের বাজে একটি ভুলকে দায়ী করা যায়।

    যদিও ক্রিস্টিয়ান এরিকসেন, ডেলে আলি, মোসা ডেম্বেলের মত তারকাদের ইনজুরির কারণে হারিয়ে টটেনহ্যাম প্রথম থেকেই কিছুই ব্যাক-ফুটে ছিল। ২৫ মিনিটে কেনের একটি শট আটকাতে খুব একটা কষ্ট করতে হয়নি বার্সা গোলরক্ষক মার্ক আন্দ্রে টার স্টেগানকে। তবে ২৮ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুন করতে কোন ভুল করেননি রাকিটিচ। মেসির বাড়ানোর পাস কুটিনহো টাচলাইনের পেছন থেকে নিয়ে রাকিটিচকে এগিয়ে দেন। জোরালো এক হাফ-ভলিতে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন এই ক্রোয়েট তারকা।

    দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে মেসি টটেনহ্যামকে নিয়ে যেন ছেলেখেলা শুরু করে। তার জন্য গোল করা সময়ের ব্যাপার হয়ে দাঁড়ায়। তারই ধারাবাহিকতায় মেসির একটি শট গোলপোস্টে লেগে ফেরত আসে। ৫২ মিনিটে অবশ্য কেন টটেনহ্যামকে কিছুটা জীবন ফিরিয়ে দেন। ক্যারিয়ারে ১২টি চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ম্যাচে এই নিয়ে দশম গোল করলেন কেন।

    ৫৬ মিনিটে আলবার পাস থেকে মেসি লোরিসকে পরাস্ত করেন। তারপরেও ম্যাচ ছেড়ে দেয়নি স্বাগিতকরা। ৬৬ মিনিটে লামেলার গোলে আবারো স্বপ্ন দেখতে শুরু করে টটেনহ্যাম। কিন্তু ৯০ মিনিটে আলবার ক্রস থেকে মেসি নিজের দ্বিতীয় গোল করলে বার্সার জয় নিশ্চিত হয়। বাসস।

     

    বিডিস্পোর্টস২৪ ডটকম /বিকে


অতিথি কলাম

সাক্ষাৎকার

স্পোর্টস ফ্যাশন


প্রবাসী তারকা

জেলা ক্রীড়া সংস্থা

বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থা

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
১০১১১২১৩১৪
১৫১৬১৭১৮১৯২০২১
২২২৩২৪২৫২৬২৭২৮
২৯৩০৩১  


ক্রীড়া সাহিত্য

ব্যাডমিন্টন

আরচ্যারি

গল্‌ফ

ভারোত্তোলন

মহিলা ক্রীড়া সংস্থা