৭ উইকেটের হারে টি-২০ সিরিজ শুরু পাকিস্তানের – BD Sports 24
  • ৭ উইকেটের হারে টি-২০ সিরিজ শুরু পাকিস্তানের

    January 22nd, 2018

    ক্রীড়া ডেস্ক

    বিডিস্পোর্টস২৪ ডটকম

    ওয়েলিংটন, ২২ জানুয়ারি: নিউজিল্যান্ড সফরটা মোটেও ভালো যাচ্ছে না সফরকারী পাকিস্তানের। ৫ ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজে নিউজিল্যান্ডের কাছে হোয়াইটওয়াশের পর আজ তিন ম্যাচ টি-২০ সিরিজের প্রথমটিতে ৭ উইকেটের বড় ব্যবধানে হেরেছে পাকিস্তান।

    পাকিস্তানের দেয়া ১০৬ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে নিউজিল্যান্ড ২৫ বল হাতে রেখেই ৩ উইকেটে ১০৬ রান স্কোরবোর্ডে জমা করলে ৭  উইকেটে জিতে যায় কিউরা। ফলে টি-২০ সিরিজে ১-০তে এগিয়ে গেলো তারা।

    ১০৬ রানের মামুলি টার্গেট তাড়া করতে নেমে ৩ রানেই প্রথম উইকেট হারায় স্বাগতিকরা।  কিউই ওপেনার মার্টিন গাপতিল পাক পেসার রুম্মন রইসের প্রথম ওভারের প্রথম বলে মিড অনে মোহাম্মদ নেওয়াজের হাতে ক্যাচ দিয়ে বিদায় নেন।  ২ রানের বেশি এগুতে পারেননি গাপতিল।

    এরপর দলীয় ৮ রানে সাজঘরে ফিরেন কিউই উইকেটরক্ষক  গ্লেন ফিলিপস। ৩ রান করা ফিলিপস রম্মন রইসের দুর্দান্ত ডেলিভারিতে বোল্ড হন।

    তৃতীয় উইকেট জুটিতে কলিন মনরো ও টম ব্রুস ৪৯ রানের পার্টনারশিপ গড়ে বিচ্ছিন্ন হন। পাক স্পিনার সাদাব খানের বলে ডিপ মিড উইকেটে ফখর জামানের হাতে ধরা পড়ার আগে টম ব্রুস নিজের নামের পাশে যোগ করেন মূল্যবান ২৬ রান। তার ২২ বলের ইনিংসে ৩টি চার ও একটি ছক্কার মার রয়েছে।

    এরপর চতুর্থ উইকেট জুটিতে কিউই ওপেনার কলিন মনরো ও রস টেইলর আর কোনো উইকেটে পতন হতে দেননি। এই দুই ব্যাটসম্যান মাত্র ৫.৪ ওভারে ৪৯ রানের অবিচ্ছিন্ন পার্টনারশিপ গড়ে দলের দল নিশ্চিত করে মাঠ ছাড়েন। কলিন মনরো ৪৩ বলে তিনটি চার ও দুটি ছক্কায় ৪৯ রানে অপরাজিত থাকেন অপর ব্যাটসম্যান রস টেইলর ১৩ বলে তিন বাউন্ডারিতে ২২ রানে অপরাজিত থাকেন।

    পাকিস্তানি বোলারদের মধ্যে রুম্মন রইস দুটি এবং সাদাব খান একটি উইকেট নেন।

    এর আগে ওয়েলিংটনে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম টি-২০ ম্যাচে টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ১৯.৪ ওভারে ১০৫ রানে অলআউট হয় পাকিস্তান। ফলে জয়ের জন্য নিউজিল্যান্ডের প্রয়োজন ১০৬ রান।

    ইনিংসের শুরুতেই মাত্র ৪ রানে দুই ওপেনারের বিদায়ে কোণঠাসা হয়ে পড়ে সফরকারী পাকিস্তান। এরপর ১৫ রানে বিদায় নেন ওয়ানডাউনে নামা মোহাম্মদ নেওয়াজ। ২২ রানে হারিস সোহেল বিদায় নিলে চতুর্থ উইকেটের পতন ঘটে পাকিস্তানের।

    মাত্র ৪ রান তুলতেই পাকিস্তানের দুই ওপেনার সাজঘরে ফিরে গেছেন। পাক শিবিরে প্রথম আঘাতটি হানেন কিউই অধিনায়ক টিম সাউদি। সাউদি তার প্রথম ওভারের তৃতীয় বলে এক অসাধারণ ডেলিভারিতে পাক ওপেনার ফখর জামানকে কিচেনের ক্যাচে পরিণত করেন। ফখর জামান ৪ বল মোকাবেলায় ৩ রান করতে সক্ষম হয়।

    এরপর দলীয় একই রানে অর্থাৎ ৪ রানে বিদায় নেন অপর ওপেনার উমর আমিন। অপর কিউই পেসার সেথ রেন্স-এর দ্বিতীয় ওভারের দ্বিতীয় বলে কিচেনের হাতে ক্যাচ দিয়ে বিদায় নেন উমর আমিন। ৭ বল মোকাবেলা করলেও উমর আমিন রানের খাতা খুলতে পারেননি।

    পাক শিবিরে আবারও আঘাত হানেন টিম সাউদি। সাউদি তার দ্বিতীয় ওভারের পঞ্চম বলে ওয়ানডাউনে নামা মোহাম্মদ নেওয়াজকে মিড অনে কলিন মনরোর তালুবন্দী করলে তৃতীয় উইকেট হারায় পাকিস্তান।

    ২২ রানে কিচেনের বলে ব্রুস-এর হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফিরেন ৯ রান করা হারিস সোহেল। এরপর ৩৮ রানে কিউই স্পিনার স্যান্টনার পর পর দুই বলে দুই পাকিস্তানি ব্যাটসম্যানকে প্যাভিলিয়নে ফেরত পাঠান। এই ‍দুইজনই উইকেটের পেছনে ক্যাচ দিয়ে বিদায় নেন। সরফরাজ ৯ রান করলেও সাদাব খান রানের খাতা খুলতে পারেননি।

    শেষদিকে বাবর আজমের ৪১ বলে ৪১ রান এবং হাসান আলীর ১২ বলে ২৩ রানের কল্যাণে ১০০ রান পার করতে সক্ষম হয় পাকিস্তান। কিউই বোলারদের দাপটে ১৯.৪ ওভারে ১০৫ রানে অলআউট হয় পাকিস্তান।

    কিউই বোলারদের মধ্যে টিম সাউদি ও রেন্স তিনটি করে, স্যান্টনার দুটি এবং কিচেন ও কলিন মনরো একটি করে উইকেট নেন।

    ম্যাচসেরা হন বিজয়ী দলের ওপেনার কলিন মনরো।

    আগামী ২৫ জানুয়ারি অকল্যান্ডে দ্বিতীয় টি-২০তে মুখোমুখি হবে পাকিস্তান-নিউজিল্যান্ড।

    বিডিস্পোর্টস২৪ ডটকম/বিকে


অতিথি কলাম

সাক্ষাৎকার

স্পোর্টস ফ্যাশন


প্রবাসী তারকা

জেলা ক্রীড়া সংস্থা

বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থা

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮